Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ বুধবার, এপ্রিল ২০১৯ | ১১ বৈশাখ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

ভারতরত্ন প্রত্যাখ্যান করেছেন ভূপেন হাজারিকার পরিবার

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০২:৫২ PM আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০২:৫২ PM

bdmorning Image Preview


ভারতের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান ভারতরত্ন প্রত্যাখ্যান করেছেন প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পী ভূপেন হাজারিকার ছেলে তেজ হাজারিকা। বিতর্কিত নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল ২০১৬-র প্রতিবাদে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

গেল ২৬ জানুয়ারি ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে প্রয়াত ভূপেন হাজারিকে ভারতরত্ন প্রদানের ঘোষণা দেয়া হয়। গত সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) ভূপেন হাজারিকার একমাত্র ছেলে তেজ ভূপেন হাজারিকা জানান, ‘আমি আসামের বর্তমান পরিস্থিতি জানি। ভূপেন হাজারিকা সব সময় আসামের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। আসামের হয়ে লড়াই ও আন্দোলন করেছেন। তাই আমরা এই সম্মান গ্রহণ করতে অস্বীকার করছি। ছেলে হিসেবে আমি জানাচ্ছি, ভারত সরকার বাবাকে যে মরণোত্তর সম্মান প্রদর্শন করছে, তা আমরা গ্রহণ করছি না।’

সরকার হাজারিকাকে নিয়ে ফায়দা তোলার চেষ্টা করছে উল্লেখ করে তেজ হাজারিকা জানান, তার বাবার নাম এই বিলের সঙ্গে জুড়ে দিয়ে রাজনৈতিকভাবে ফায়দা তোলার চেষ্টা করছে সরকার। এটা তাদের পক্ষে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়।

উল্লেখ্য, ভূপেন হাজারিকার জন্ম আসামে ১৯২৬ সালে। ৮৫ বছর বয়সে ২০১১ সালে তিনি মারা যান। ভূপেন হাজারিকা একাধারে সংগীতশিল্পী, সুরকার, গীতিকার, চলচ্চিত্রকার ও কবি। তিনি পেয়েছেন সংস্কৃতি অঙ্গনের ভারতের সর্বোচ্চ সম্মান দাদাসাহেব ফালকে পদক, আসামরত্ন পদক, পদ্মশ্রী, পদ্মভূষণ, পদ্মবিভূষণ সম্মাননা। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে গান গেয়ে অবদান রেখেছেন। তার গান শুনে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন মুক্তিযোদ্ধারা। বাংলাদেশ সরকার তাকে ২০১১ সালে ‘মুক্তিযুদ্ধ পদক’ প্রদান করে।

Bootstrap Image Preview