Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৮ রবিবার, আগষ্ট ২০১৯ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৫০ PM
আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৫০ PM

bdmorning Image Preview


ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (যবিপ্রবিশিস)।

আজ বুধবার দুপুরে যবিপ্রবি প্রধান ফটকের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শিক্ষক সমিতির সদস্যরা।

শ্রদ্ধা নিবেদনের পরে উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী শিক্ষকবৃন্দের সংগঠন নীল দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো: ইকবাল কবীর জাহিদ বলেন, ১৭ এপ্রিল শপথের মধ্য দিয়ে স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। এ দিন বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণার আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দেওয়া হয়। এই অকাট্য ইতিহাস নিয়েও নানা সময়ে বিকৃত করার হীন চেষ্টা করা হয়েছে। আমরা কোনো ভাবেই মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস বিকৃত হতে দেব না।

১৭ এপ্রিলের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরে অধ্যাপক ড. মো: ইকবাল কবীর জাহিদ বলেন, আজ ১৭ই এপ্রিল, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের এক অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এদিন মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আম্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করেন এবং স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ করা হয়। সুতরাং এ দিনটি বাংলাদেশের মানুষের কাছে বিশেষভাবে তাৎপর্যপূর্ণ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. মো: আনিছুর রহমান, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও নীল দলের যুগ্ম আহ্বায়ক ড. মো: নাজমুল হাসান, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন ড. মো: ওমর ফারুক, শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের প্রভোস্ট প্রকৌশলী ড. মো: আমজাদ হোসেন, বীর প্রতীক তারামন বিবি হলের প্রাধ্যক্ষ ড. শিরীন নিগার, মুনশি মোহাম্মদ মেহরুল্লাহ হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মো: জাফিরুল ইসলাম, নীল দলের কার্যকরী সদস্য ডা. মো: ফিরোজ কবির প্রমুখ।

পুস্পস্তবক অর্পণের সময় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নীল দলের কার্যকরী সদস্যসহ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস সমুন্নত রাখার ব্যাপারে ঐক্যমত পোষণ করেন।

Bootstrap Image Preview