Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ শুক্রবার, জুলাই ২০১৯ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

সানাইর আসল পরিচয় প্রকাশ করলেন তারা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৭:০০ PM
আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৭:০০ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


সানাই মাহবুব সুপ্রভাকেঅপেশাদার ও অপ্রাসঙ্গিক ভিডিও  ছড়িয়ে আলোচনায় ছিলেন। সেই আলোচনার মাত্রা বেড়ে গেলো যখন ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটের সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগে তাকে তাদের কার্যালয়ে নিয়ে আসে। তারপর থেকে তার পরিচয় নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বিতর্ক। কে এই সানাই? যদিও তিনি নিজেকে মডেল এবং চিত্রনায়িকা পরিচয় দেন।

তবে সানাইকে চিত্রনায়িকা হিসেবে সম্বোধন নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এফডিসি পাড়ার পরিচালক ও শিল্পীরা। শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘সানাই নামে আমাদের কোনো চিত্রনায়িকা নেই। শুনেছি তিনি একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনটি চলচ্চিত্রের মূল চরিত্রে কোনো শিল্পী অভিনয় করলে, ছবি তিনটি মুক্তি পাবার পর আমাদের সমিতির সদস্য হতে পারেন। সেই হিসেবে সানাই চিত্রনায়িকা নন।’

অন্যদিকে পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান বলেন, ‘কাউকে নায়িকা লিখতে গেলে অন্তত তার একটি চলচ্চিত্র মুক্তি পেতে হবে। সেই ক্ষেত্রে তার বেলায় লেখা যায় তিনি অমুক ছবির নায়িকা। মুক্তি পাবার আগে তাকে বড়জোর নবাগত নায়িকা লেখা যেতে পারে। একটি ছবি মুক্তি পেলে তার ক্ষেত্রে ছবির নায়িকা বা চিত্রনায়িকা লেখা যেতে পারে। তবে ছবি মুক্তি পাওয়ার আগে তাকে নায়িকা বলা যায় না। নিজেকে যে কেউ নায়িকা দাবি করতেই পারেন। তবে গণমাধ্যমের উচিত চিত্রনায়িকা লেখার আগে ভেবে নেওয়া, কাদের বেলায় চিত্রনায়িকা শব্দটি লেখা যায়।’

পরিচালক গাজী মাহবুব এ বিষয়ে মাহবুব বলেন, ‘আমরা যখন ছবিতে নায়িকা হিসেবে সানাইকে চুক্তিবদ্ধ করেছিলাম, তখন কোনো সমস্যা মনে হয়নি। তবে তার কিছুদিন পর সোশাল মিডিয়ায় মেয়েটির কার্যকলাপ দেখে ছবিটি আর করার ইচ্ছে নেই আমার। যে কারণে ‘ভালোবাসা ২৪.৭’ চলচ্চিত্রটি বাদ দিয়েছি।’ ‘ভালোবাসা ২৪.৭’ছবিতে সানাইয়ের বিপরীতে জায়েদ খানের অভিনয় করার কথা ছিল। 

তবে তাদের এই অভিযোগ নিয়ে সানাই বলেন, ‘আমি ‘ময়নার ইতিকথা’ শিরোনামে একটি চলচ্চিত্রে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছি। যে কারণে আমি নিজেকে নায়িকা হিসেবে দাবি করতেই পারি। তা ছাড়া একাধিক ছবিতে আমি নায়িকা হিসেবে চুক্তিবদ্ধও হয়েছি।’

এদিকে ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম বলেন, ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার স্যারের নেতৃত্বে নিরাপদ ইন্টারনেট ক্যাম্পেইনের অংশ হিসেবে সানাইকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমাদের অফিসে এনেছিলাম। সানাই তার ভিডিওগুলোর জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চেয়েছে এনং সেসব ভিডিও মুছে ফেলতে সম্মত হয়েছে।

তিনি বলেন, সে মুচলেকা দিয়েছে যে সে কখনো আর এ ধরনের ভিডিও বানাবে না বা ছড়াবে না। সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগ আর এ হেন কর্মকাণ্ডের ওপর নজর রাখবে। যে তার মুচলেকার বাইরে কিছু করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অন্যান্য অনেকের জন্যও আমাদের এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে ‘শালবনের মহুয়া’ শিরোনামে একটি চলচ্চিত্রে পাঁচদিন শুটিং করেন সানাই। অজ্ঞাত কারণে সেখানেই শেষ হয়ে যায় ছবিটি। এরপর গাজী মাহবুবের ‘ভালোবাসা ২৪.৭’ ছবিতে তিনি চুক্তিবদ্ধ হন। পরে  মোস্তাফিজুর রহমান বাবু পরিচালিত দুটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন ২০১৭ সালে। এখনো ছবিগুলোর কোনো অগ্রগতি নেই। ছোটপর্দার নির্মাতা বাবু সিদ্দিকী পরিচালিত ‘ময়নার ইতিকথা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন সানাই। আগামী মাসে ছবিটি সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়ার কথা রয়েছে।

Bootstrap Image Preview