Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ শুক্রবার, মে ২০১৯ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

যেসব কথা কখনও বাবা-মাকে বলবেন না

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০১:৫৩ PM
আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০১:৫৩ PM

bdmorning Image Preview


পৃথিবীতে খুব কমই বাবা-মা আছেন যারা তার সন্তানের যথেষ্ট যত্ন নেন না। সন্তান প্রতিপালন সবচেয়ে বড় দায়িত্ব, সেটা সবাই জানেন-বোঝেন। কিন্তু সবার প্রতিপালনের ধরনটা এক রকম হয় না। কেউ হয়তো একটু বেশি বকাবকি করেন, কেউ কম।

সন্তান বড় হলে, তার যখন নিজস্ব ব্যক্তিত্ব তৈরি হয়, তখন সে একটু একটু করে বাবা-মায়ের কথার উপর কথা বলতে শুরু করে। এটা ঠিক কী ভুল, সেই বিচার এক কথায় সম্ভব নয়। সবটাই পরিস্থিতি এবং পাত্রপাত্রীর উপর নির্ভর করে। কিন্তু কিছু কথা এমন রয়েছে যা বাবা-মাকে কখনও না বলাই ভাল-

১. ‘আমি তোমাকে ঘৃণা করি’- সন্তান যত বড়ই হোক বা যত ছোটই হোক বয়সে। এই কথাটা যে কোনো অভিভাবকের কাছে সবচেয়ে বড় ধাক্কা।

২. ‘তোমরা আমাকে জন্ম দিলে কেন’- সন্তানকে বকাবকি করার সময়ে বা তার কোনো বিষয়ে অসুবিধা প্রকাশ করলে অনেক সময়েই অভিভাবকদের এই কথা শুনতে হয়। বিশেষ করে বিবাহ বিচ্ছেদের পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় এই অভিযোগ। কিন্তু এই কথাটাও সবচেয়ে বেশি আঘাত করে তাদের।

৩. ‘তুমি বোন বা ভাইকে বেশি ভালবাসো’- অভিভাবকের কাছে তার সব সন্তানই সমান। হয়তো স্নেহের বহিঃপ্রকাশটা এক একজনের ক্ষেত্রে এক এক রকম হয়ে থাকে। কিন্তু এটা কখনওই ভাবা উচিত নয় যে অন্য সন্তানকে তিনি বেশি ভালবাসেন এবং সেটা ভেবে তাকে কটু কথা বলা একেবারেই উচিত নয়।

৪. ‘তোমরা যদি আমার বাবা-মা না হতে তবে ভাল হত’- সম্ভবত প্রথম কথাটির চেয়েও এই কথাটি অনেক বেশি কষ্ট দেয় অভিভাবকদের।

৫. ‘তোমাকে এখন সময় দিতে পারব না’- বাবা-মায়েরা সন্তানকে বড় করে তোলার সময়ে অনেক আত্মত্যাগ করেন কিন্তু উলটোটা সব সময়ে দেখা যায় না। যদি সত্যিই বয়স্ক অভিভাবককে সময় দিতে না পারা যায় ব্যস্ততার কারণে, তাহলেও সেটা এভাবে বলা কখনওই কাজের কথা নয়। 

Bootstrap Image Preview