Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১২ বুধবার, আগষ্ট ২০২০ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘এল ক্লাসিকো’ পর্যন্তই নিশ্চয়তা পেয়েছেন লোপেতেগি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০১৮, ১১:৩৭ AM
আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০১৮, ১১:৩৭ AM

bdmorning Image Preview


চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মতো গুরুত্বপূর্ণ প্রতিযোগিতায় জয় পেয়েছে রিয়াল। তাও আবার সব ধরণেল প্রতিযোগিতায় টানা পাঁচ ম্যাচ হেরে। তা সত্বেও তাদের ম্যানেজারের জুলেন লোপেতেগির মুখে হাসি ছিল না। এমন দৃশ্য খুব কমই দেখা গেছে।

রিয়াল মাদ্রিদে এখন সে রকমই হাওয়া। ভিক্টোরিয়া প্লাজেনের বিরুদ্ধে ২-১ জেতার পরেও গম্ভীর মুখে পায়চারি করছিলেন জুলেন লোপেতেগি। তাঁর সেই মুখভঙ্গিই যেন বলে দিচ্ছিল, দল জিতলেও নিজের বিপদ কাটেনি। আরও অনেক বড় হার্ডল অপেক্ষা করছে সামনে। 

লোপেতেগির সব চেয়ে বড় পরীক্ষা হতে যাচ্ছে রবিবারের এল ক্লাসিকো। বার্সেলোনার ঘরের মাঠে গিয়ে খেলতে হবে বলে রিয়াল মাদ্রিদের জন্য আরও চাপের এই ম্যাচ। বারো বছর পরে ক্লাসিকোতে থাকছে না লিওনেল মেসি বনাম ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর দ্বৈরথ। মেসি চোট পেয়ে বাইরে। রোনালদো তো আগেই রিয়াল ছেড়ে চলে গিয়েছেন জুভেন্টাসে। কিন্তু ক্লাসিকোর উত্তাপ এ বার বাড়িয়ে দিয়েছে রিয়াল ম্যানেজারকে নিয়ে জল্পনা। 

চাকরি বাঁচানোর জন্য লড়ছেন লোপেতেগি এবং তাঁর ভবিষ্যৎ অনেকটাই ঠিক করে দিতে পারে রবিবারের ক্লাসিকো। লা লিগায় চারটি ম্যাচের তিনটিতে হেরে সপ্তম স্থানে নেমে গিয়েছে রিয়াল। চিরশত্রু বার্সেলোনার বিরুদ্ধে খারাপ ফল করলে যে লোপেতেগিকে সরানোর চাপ বাড়বে, তা নিয়ে সন্দেহ নেই। অথচ, এই লোপেতেগিকেই বিতর্কিত ভাবে বিশ্বকাপের মধ্যে ম্যানেজার করেছিলেন রিয়াল কর্তারা। সেই সময়ে লোপেতেগি ছিলেন স্পেনের দায়িত্বে। বিশ্বকাপের মধ্যে তিনি রিয়ালের দায়িত্ব নিতে রাজি হন বলে তাঁকে রাতারাতি ছাঁটাই করে স্পেন ফুটবল ফেডারেশন। তা নিয়ে স্পেন শিবিরেই বিভেদ তৈরি হয়েছিল। 

লোপেতেগিকে সাংবাদিকেরা জিজ্ঞেস করেছিলেন, জেতার পরেও আপনার মুখে হাসি নেই কেন? তাঁর জবাব, ‘‘আমার মুখে হাসি নেই কারণ, আমি এমনিতেই খুব বেশি হাসি না। আমি মানুষটাই এ রকম। কম হাসি। কী আর করা যাবে?’’ ৫২ বছরের রিয়াল মাদ্রিদ ম্যানেজার এর পর আরো বলেন, ‘‘আমি বেশ ভালই আছি। জিততে পেরে আমি খুশি। যত আমরা উন্নতি করব, ততই সব কিছু শান্ত হতে থাকবে।’’

সব কিছু বলতে অবশ্য তাঁর ছাঁটাই ঘিরে জল্পনাকেই বোঝাতে চেয়েছেন ম্যানেজার। পাঁচ ম্যাচ পরে প্লাজেনের বিরুদ্ধে জয়ে ফিরেছে রিয়াল। কিন্তু দল একেবারেই গুছিয়ে খেলতে পারেনি বলে ম্যানেজারের মাথার উপরে মেঘাচ্ছন্ন আকাশ একই রকম কালো থেকে গিয়েছে। রিয়াল ভক্তরাও যে তাঁর পাশে নেই, সেটা প্রত্যেক ম্যাচেই পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। লা লিগায় লেভান্তের কাছে হারের ম্যাচের পরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্লাজেনের বিরুদ্ধে জিতেও সমর্থকদের ধিক্কার ধ্বনি শুনতে হয়েছে তাঁকে। 

শোনা যাচ্ছে, এল ক্লাসিকো পর্যন্ত থাকার নিশ্চয়তাই শুধু পেয়েছেন লোপেতেগি। লা লিগার মহারণের ফলাফল দেখে ঠিক করা হবে তাঁর ভাগ্য। লোপেতেগি যদিও এল ক্লাসিকো নিয়ে উত্তেজিত। বলছেন, ‘‘আমাদের সামনে খুবই স্পেশ্যাল একটা ম্যাচ আসছে। আমরা প্রত্যেকে ভাল কিছু করার জন্য খুব উৎসাহী। আমরা এই লড়াইয়ের জন্য নিজেদের দারুণ ভাবে তৈরি করতে চাই।’’ 

রিয়ালের ম্যানেজার হিসেবে এখনও পর্যন্ত ছ’টি ম্যাচে জিতেছেন তিনি, হেরেছেন পাঁচটিতে, ড্র হয়েছে দু’টি ম্যাচ। ১৯৯৪ বিশ্বকাপে স্পেনের রিজার্ভ গোলকিপার ছিলেন তিনি। পর্তুগালে পোর্তোর হয়ে দুই মৌসুম কোচিং করিয়ে ট্রফি জিততে পারেননি। তাঁকে স্পেনের কোচ করা হয় যুব দলের সঙ্গে সাফল্যের ভিত্তিতে। তাঁর যোগ্যতা নিয়ে নানা প্রশ্ন থাকলেও স্পেনের সিনিয়র দলকে তিনি দারুণ ভাবে তৈরি করে বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট করে তুলেছিলেন। কিন্তু বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ইন্দ্রপতন ঘটে। তাদের না জানিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের কোচের পদ গ্রহণ করায় তাঁকে বরখাস্ত করে স্পেন ফুটবল ফেডারেশন। এখন যা পরিস্থিতি, লোপেতেগির দুই কূলই যাওয়ার মুখে। না পারলেন স্পেনের চাকরি রাখতে, না যায় রিয়ালের পদও!    

Bootstrap Image Preview