Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৭ শনিবার, আগষ্ট ২০১৯ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

এই ঈদেও গানের সঙ্গে বিশেষ চমক নিয়ে আসছেন ড. মাহফুজুর রহমান

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ মে ২০১৯, ০৫:১৪ PM আপডেট: ১৫ মে ২০১৯, ০৭:৩০ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


গেলো দুই বছরে গানের জগতে আলোচিত নাম ড.মাহফুজুর রহমান। আলোচনা-সমালোচনার ঝড়ে ভেসে গেলেও গানের বৈঠা শক্ত হাতে ধরে ছিলেন তিনি। আসছে ঈদেও ভক্তদের গান শোনাবেন এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান।

২০১৭ সালে কোরবানি ঈদে প্রথম গান নিয়ে হাজির হন ড.মাহফুজুর রহমান। তার কণ্ঠে একক সংগীতানুষ্ঠানটি প্রচারে আসার পর রাতারাতি সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। তার দাবি, কেউ কেউ সমালোচনা করলেও তার অনেক ভক্তও গড়ে উঠেছে। যারা মাহফুজুর রহমানের গানের অনুষ্ঠানের জন্য অপেক্ষায় থাকেন।

অপেক্ষায় থাকা ভক্তদের জন্য সুখবর। আসছে রোজা ঈদে ড. মাহফুজুর রহমানের মালিকানাধীন চ্যানেল এটিএন বাংলায় প্রচার হবে তার একক সংগীতানুষ্ঠান।

জানা গেছে, এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি গানের রেকর্ডিং ও ভিডিও ধারণ শেষ হয়েছে। বিশ্বের নানা দেশের লোকেশনে চিত্রায়িত হচ্ছে গানগুলো। দেশসেরা গীতিকবিদের লেখা গানগুলোতে সুর ও সংগীতায়োজনেও থাকবে চমক। সেখানে মেলোডি ধাঁচের প্রেম-বিরহের কিছু গান থাকবে। অনুষ্ঠানের সবগুলো গান চূড়ান্ত হলে এর নামকরণ করা হবে।

এটিএন বাংলা প্রত্যাশা করছে, গেল দুই বারের মতো গান দিয়ে এবারের ঈদও মাতিয়ে রাখবেন ড. মাহফুজুর রহমান।

অপরদিকে ড. মাহফুজুর রহমানকে নিয়ে একটি গান গেয়েছেন আমিরুল মোমেনীন মানিক। ‘বাতিঘর’ শিরোনামের গানটি লেখার পাশাপাশি সুরও করেছেন শিল্পী নিজেই। গানটির সংগীত পরিচালনা করেছেন রাজেশ। এখন গানটির ভিডিও তৈরির প্রস্তুতি চলছে। মানিক জানালেন, এই গানে মডেল হবেন ড. মাহফুজুর রহমান।

এ বিষয়ে ড. মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘সাংবাদিকতার পাশাপাশি মানিক দারুণ গান করে। মূলত তার আগ্রহ ও উৎসাহের কারণেই গানের ভিডিওতে আমি পারফর্ম করছি। এই গানে আমার জীবনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়েছে। এটিএন বাংলার কর্মীরা গানটিকে জীবন্ত করে তুলতে প্রাণান্ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

অন্যদিকে সংগীতশিল্পী মানিক বলেন, ‘এটিএন বাংলার প্রযোজনায় গানের ভিডিওটি তৈরির প্রস্তুতি চলছে। দেশের বাইরে শুটিং হওয়ার কথা রয়েছে। ভিডিও তৈরি হলেই এটি প্রকাশ করা হবে বিশেষ কোনো দিনে।’

মানিক আরও বলেন, ‘একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে ড. মাহফুজুর রহমান আমার কাছের মানুষ হয়েছেন। তার প্রতি মুগ্ধ হয়ে গানের কথাগুলো লিখেছিলাম। ড. মাহফুজুর রহমানের সংস্কৃতির প্রতি দরদ রয়েছে। তিনি শখের বশে নিজেই গান করছেন। এটাকে আমি স্যালুট করি। তিনি অনেকের জন্য অনুপ্রেরণা।’

Bootstrap Image Preview