Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৭ শুক্রবার, মে ২০২১ | ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

পিরোজপুরে শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে

পিরোজপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২২ জুন ২০১৯, ০৫:৫২ PM
আপডেট: ২২ জুন ২০১৯, ০৫:৫৭ PM

bdmorning Image Preview


পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার ১৫২ নং পশ্চিম চালিতাবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের ছাদ ভেঙে নির্মাণকাজ ফেলে রাখায় শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে। 

বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮২ সালে ৩৪ শতাংশ জমিজুড়ে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়টিতে ১৩৩জন শিক্ষার্থী নিয়মিত লেখাপড়া করে আসছে। ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় সিডরে স্কুল ভবনটি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পরিণত হয়।

বিদ্যালয়ের ছাদ ও পলেস্তরা খসে পড়তে শুরু করলে প্রাণহানীর ভয়ে আতংকের মধ্যে পড়েন শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা।

সম্প্রতি বিদ্যালয়ের ছাদ অপসারণ করে টিনের চালা নির্মাণে জন্য দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় সরকার। ওই বরাদ্দ নিয়ে বিদ্যালয়ের বর্তমান সভাপতি হাফিজুর রহমান হায়দার গত দেড়মাস আগে সংস্কার কাজ শুরু করলেও অর্ধেক কাজ শেষ করেননি।

এদিকে প্রচন্ড রোদ ও বৃষ্টিতে খোলা আকাশের নীচে ক্লাশ করতে বাধ্য হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিধান চন্দ্র হালদার শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে বলেন, স্কুল ভবনের ছাদ ভাঙার পর বিকল্প পাঠদানের কোনও ব্যবস্থা না থাকায় বাধ্য হয়ে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান করাতে হচ্ছে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হাফিজুর রহমান হায়দার বলেন, স্কুলের ছাদ ভাঙার পর বরাদ্দের টাকা না পাওয়া ও ঝড় বৃষ্টির কারনে টিনের চালা নির্মাণে দেরি হচ্ছে।

উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, বিদ্যালয়ের ছাদ ভেঙে টিনের ছাউনির কাঠামো দিয়ে সংস্কারে দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সংস্কারের কাজ রমজান মাসের মধ্যে শেষ করার কথা। কিন্তু বরাদ্দের অর্থ ছাড় না হওয়ায় সংস্কারে সময় লেগেছে।

Bootstrap Image Preview