Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৮ শুক্রবার, অক্টোবার ২০১৯ | ৩ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

পদ্মা সেতুর জন্য মাথা লাগবে গুজবে চাঁদপুরে এক ব্যক্তিকে গণপিটুনি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জুলাই ২০১৯, ০৭:৪৪ PM
আপডেট: ১২ জুলাই ২০১৯, ০৭:৪৪ PM

bdmorning Image Preview
প্রতীকী ছবি


পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজে মানুষের মাথা লাগবে এমন গুজব রটানোর অভিযোগে চাঁদপুরে এক ব্যক্তিকে বেধরক পিটুনি দিয়েছে স্থানীয় জনতা। 

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই)  চাঁদপুর সদরের ইসলামপুর গাছতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মারধরের শিকার ওই ব্যক্তির নাম মনু মিয়া (৪০)। তিনি লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার বাসাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের কেউ কেউ জানিয়েছেন, বস্তাওয়ালা কিংবা ছেলেধরা ভেবে প্রথমে আটক করা হয় মনু মিয়াকে। এসময় মনু মিয়া ভিক্ষা করছিলেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কাউসার জানায়, চাঁদপুর সদরের বালিয়া ইউনিয়নের ইচলী কলোনি এলাকায় মনু মিয়া এলে তার কথাবার্তা ও গতিবিধিতে সন্দেহ হয় স্থানীয়দের। কয়েকজন তাকে আটক করে মারতে মারতে চাঁদপুর-রায়পুর সড়ক সংলগ্ন কাদির গাজী মার্কেটের কাছে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক দিলিপ কুমার জানান, সকালে ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে মনু মিয়াকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।

আরেকটু দেরি হলে জনতার মারধরে মনু মিয়ার মারা যাওয়ার আশঙ্কা ছিল বলে জানান দিলিপ কুমার।

প্রাথমিকভাবে মনু মিয়া মানসিক ভারসাম্যহীন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

চাঁদপুর পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির বলেন, সম্প্রতি চাঁদপুর জেলার একাধিক স্থানে একই ধরনের কয়েকটি ঘটনায় ঘটেছে। কতিপয় স্বার্থান্বেষী মহল পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে মর্মে বিভ্রান্তি ও গুজব ছড়াচ্ছে। এমন গুজবে ঘাবড়ে গিয়ে চাঁদপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী কিংবা ভবঘুরে নারী-পুরুষদের আটক করে গণপিটুনি দেয়া হচ্ছে।

আইন নিজের হাতে না নিতে অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, এ বিষয়ে পুলিশ বেশ সতর্ক। গুজব ছড়ানোর পেছনে যারা জড়িত তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

প্রসঙ্গত, পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজে মানুষের মাথা লাগবে এমন কুসংস্কার ও ভিত্তিহীন গুজবে মেতেছে নেটিজেনরা। তবে বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর ও পদ্মাসেতু কর্তৃপক্ষের বিবৃতিতে এমন গুজব ছড়ানো থেকে অনেকটাই সরে এসেছেন সচেতনরা।

এমন গুজব ছড়ানোদের গ্রেফতারে নেমেছে আইনশৃংখলা বাহিনী।

Bootstrap Image Preview