Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ শনিবার, মে ২০১৯ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

চলে গেলেন ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ০১:৩৫ PM
আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০১৮, ০১:৩৫ PM

bdmorning Image Preview


আসাদ গাজী, শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন মাঝি ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। 

শুক্রবার (২৬ অক্টোবর) বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ডায়াবেটিস ও কিডনি রোগে আক্রান্ত ছিলেন। 

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী-সন্তানসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, ভক্ত ও নেতাকর্মী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে জেলা আওয়ামীলীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন ও জেলা প্রশাসন শোক প্রকাশ করেছেন।

ভেদরগঞ্জ উপজেলার সবচেয়ে জনপ্রিয় জনপ্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন মাঝি ১৯৩৭ সালের ১২ জানুয়ারি চাঁদপুর ও শরীয়তপুর জেলার সীমান্তবর্তী দ্বীপের রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের বলাশিয়া গ্রামে কৃষক পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। পিতা মৃত নুরুল হক মাঝি ও মাতা খায়রুন্নেছা দম্পত্তির ৯ সন্তানের মধ্যে তিনি ছিলেন বড়।

উল্লেখ্য, তিনি একাধারে চার বার তৎকালীন বৃহত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও তিন বার ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৬ সালে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় চেয়ারম্যান হিসেবে মহাত্মাগান্ধী স্বর্ণ পদকে ভূষিত হন তিনি। রাজনৈতিক জীবনে তিনি প্রথমে আওয়ামীলীগ রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

পরবর্তীতে তিনি বিএনপির আদর্শে রাজনীতি করেন। তার হাত ধরে চরাঞ্চলে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে অনেক নেতাকর্মী।
চরাঞ্চলের বুক জুড়ে আনোয়ার হোসেন মাঝি প্রতিষ্ঠা করে গেছেন একাধিক স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বর্তমান উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয় তিনি প্রতিষ্ঠা করেন। চেয়ারম্যান থাকাকালীন অবস্থায় প্রতিষ্ঠা করেন সখিপুর থানার অন্যতম ব্যবসা কেন্দ্র চেয়ারম্যান বাজার।

এছাড়া তার খ্যাতি ছড়িয়ে আছে চাঁদপুর, লক্ষীপুর, নোয়াখালীসহ বিভিন্ন জেলায়। তাই ভালোবেসে স্থানীয়রা তাকে “কালো মানিক” উপাধিতে ভূষিত করেন।
 

Bootstrap Image Preview