Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ সোমবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিজিবি’র চাকরি হারানো সেই সৈনিককে পাওয়া গেল স্টেশনে

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ১০:২৭ PM
আপডেট: ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ১০:২৭ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


প্রায় দেড় বছর পর বিজিবির সাবেক সদস্য হেদায়াতুল্লাহকে মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় ময়মনসিংহ রেলওয়ে স্টেশনে খুঁজে পেয়েছে তার পরিবার। তাকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত পরিবার। তার চাকরি ফিরিয়ে দিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন স্বজনরা।

হেদায়াতুল্লাহ নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার আংগারোয়া গ্রামের মরহুম গিয়াস উদ্দিন ভূঁইয়ার ছেলে। তিনি ২০১০ সালের ১৯ নভেম্বর বিজিবি’র সৈনিক হিসেবে যোগদান করেন। বিজিবিতে যোগ দেয়ার কিছুদিন পরই বিয়ে করেন তিনি। তখন থেকেই শুরু হয় সংসারে অশান্তি। তার স্ত্রী আর মায়ের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এজন্য কিছুদিন পরপরই তিনি বাড়ি চলে আসতেন।

তার পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, ছুটি না নিয়ে হেদায়াতুল্লাহ বাড়িতে চলে আসায় ২০১৭ সালের ৭ মে কর্তৃপক্ষ তাকে চাকরিচ্যুত করে। চাকরি হারানোর দিন তিনি বাড়ি এসে কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে যান। এরপর আর ফিরে আসেননি। তখন থেকেই মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে বিভিন্ন রেলস্টেশনে ঘুরে বেড়ান।

গত শুক্রবার ময়মনসিংহ রেলস্টেশনে হেদায়াতুল্লাহর খোঁজ পেয়ে বাড়ি থেকে ছুটে আসেন তার স্বজনরা। সেখান থেকে তাকে বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়।

কেন্দুয়ার গড়াডোবা ইউনিয়নের মেম্বার মিলন মিয়া জানান, আমরা জানতাম হেদায়েতুল্লাহর চাকরি চলে যাওয়ার পর বিদেশ চলে গেছেন। বর্তমানে কোথায় কীভাবে আছেন জানি না?

হেদায়েতুল্লাহ’র বিষয়ে জানতে চাইলে তার মা জরিনা বেগম (৮০) জানান, অনেক দিন ধরে ছেলে কই আছে জানি না। আমি ছেলেকে দেখতে চাই। ছেলের চাকরি ফেরত চাই। হেদায়াতুল্লাহ বর্তমানে কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের ক্ষিদিরপুরে তার শ্বশুরবাড়ি।

স্ত্রী রোজিনা আক্তার জানান, পারিবারিক নানা সমস্যার বিষয়ে বিজিবিতে অভিযোগ করলে আমার স্বামীর চাকরি চলে যায়। অভাবের সংসারে চাকরি চলে যাওয়ার বিষয়টি স্বাভাবিকভাবে মেনে নিতে পারেনি আমার স্বামী। তখন থেকে সে পাগল হয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। আমরা অনেক খোঁজাখুঁজির পর সাধারণ মানুষের কাছে জানতে পারি আমার স্বামী রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে।

তিনি আরও জানান, দেড় বছর পর শুক্রবার তাকে খুঁজে পেয়েছি। স্বামীকে বাড়ি নিয়ে এসেছি। তিন বছরের এক সন্তান নিয়ে এতদিন খুব কষ্ট করেছি। শাশুড়িরও (হেদায়াতুল্লাহ’র মার) প্যারালাইন্সিস। সরকার আমার স্বামীর চাকরি ফিরে দিলে সে হয়তো স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসবে।

হেদায়াতুল্লাহ’র সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি বলেন, সরকার কি আমার চাকরি ফিরিয়ে দেবে?

Bootstrap Image Preview