Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ শুক্রবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৪ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

নারী নিয়ে নেতার ইয়াবা সেবনের ভিডিও ভাইরাল!

বিডিমর্নিং : নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:১২ AM
আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১:১২ AM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


ফেনীর সোনাগাজী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইফতেখার হোসেন ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব নবী ফরহাদের কাণ্ডে হতবাক আ.লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতাকর্মী থেকে শুরু করে সাধারণ জনগণ।

সম্প্রতি এই দুই নেতার মাদক সেবনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। একটি ভিডিওতে দেখা যায়, নিজের ভাড়া বাসায় সুন্দরী এক নারীর সাথে ইয়াবা সেবন করছে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইফতেখার হোসেন। অপর একটিতে দেখা যায়, রাস্তায় দাঁড়িয়ে ফেন্সিডিল সেবন করছে ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব নবী ফরহাদ।

গতকাল মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকাল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু আইডি থেকে ভিডিও ও ছবিগুলো শেয়ার হলে মুহুর্তের মধ্যে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়।

২৭.৫৮ মিনিটের ভিডিওতে দেখা গেছে, ভাড়া বাসায় ছাত্রলীগ নেতা খালি শরীরে খাটের উপর বসে মৃদু স্বরে ডিভিডিতে হিন্দি গান বাজিয়ে সিগারেট ফুঁকছে। ভিডিওতে অন্য কারো ছবি দেখা না গেলেও কথার আওয়াজে বুঝা যাচ্ছে বাসাতে একাধিক পুরুষ ব্যক্তি অবস্থান করছে। কিছুক্ষন পর সুন্দরী এক নারী কক্ষটিতে প্রবেশ করে ছাত্রলীগ নেতার শরীর ঘেষে খাটের উপর বসে। তারপর তারা ইয়াবা ও সেবনের সরঞ্জাম বের করে ব্যবহারের প্রস্তুতি নেয়। একপর্যায়ে সুন্দরী নারী নিজ হাতে ছাত্রলীগ নেতার মুখে ইয়াবা তুলে দেন।

নারীর পরিচয় জানা না গেলেও ধারনা করা হচ্ছে সে ছাত্রলীগ নেতার প্রেমিকা অথবা দেহ ব্যবসায়ী হবে।

অপর একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, ছাত্রলীগ নেতা ইফতেখার তার সহযোগী আমিরাবাদ ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আইয়ুব নবী ফরহাদসহ রাস্তার পাশে প্রকাশ্যে দাড়িয়ে ফেন্সিডিল ক্রয় করে সেবন করছে। ভিডিও দেখে বুঝা যাচ্ছে স্থানটি ফুলগাজী উপজেলার কালিরহাট সিমান্তের মাদক স্পট। বাংলাদেশ-ভারত সিমান্তের এ স্পটটি জেলার মাদকের অন্যতম আখড়া হিসেবে পরিচিত।

ভিডিওটি প্রকাশের পর থেকে পুরো জেলার রাজনীতিতে তোলপাড় শুরু হয়। সোনাগাজী আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেছে। ভিডিওটি কোথায় এবং কখন ধারন করা হয়েছে সেটি পোষ্টে উল্লেখ করা না হলেও ধারনা করা হচ্ছে ফেনী শহরের মাষ্টার পাড়ায় ছাত্রলীগ নেতার ভাড়া বাসায় গোপনে কেউ ধারন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোষ্ট করে।

বিশ্বস্থ একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার নেতৃত্বে ফেনী ও সোনাগাজীতে কয়েকজন নারীর নেতৃত্বে একটি গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে, যারা আর্থিক অবস্থা সম্পন্ন লোকদের টার্গেট করে ফেসবুকে প্রেমের অভিনয় করে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নেয়। সোনাগাজীতে গত কয়েক মাসে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটলেও মান সম্মানের ভয়ে ভুক্তভোগীরা মুখ খোলেনি।

এ ব্যাপারে সোনাগাজী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল মোতালেব চৌধুরী রবিন বলেন, ব্যক্তি অপরাধের দায়ভার ছাত্রলীগ বহন করবেনা। জেলা ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ বিষয়টি আমলে নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

ফেনী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন ফিরোজ জানিয়েছেন, বিষয়টি ইতিমধ্যে বিভিন্ন মাধ্যমে জেনেছি। আমাদের অভিভাবক নিজাম উদ্দিন হাজারীকে জানানো হয়েছে। তিনি যে সিদ্ধান্ত দিবে সেটা বাস্তবায়ন করা হবে। তবে কোন মাদকাসক্তের স্থান ছাত্রলীগে হবেনা।

এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানির বলেন, ছাত্রলীগ নেতার ইয়াবা সেবনের খবরটি ফোনে জেনেছি। সত্য হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোনাগাজী মডেল থানার পরিদর্শক মোয়াজ্জেম হোসেন জানিয়েছে, অনেকে ফোন করে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওর বিষয়ে অবহিত করেছে।বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার ব্যবহৃত মুঠোফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করেও তার বক্তব্য জানা যায়নি।

Bootstrap Image Preview