Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২০ শনিবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

গুগলেও দেখাচ্ছে 'জেরুজালেম ইসরাইলের রাজধানী'

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ১০:০৪ PM
আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ১০:০৪ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক-

জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে প্রদর্শন করছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ সার্চ ইঞ্জিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান 'গুগল'। এছাড়া রাশিয়াভিত্তিক আরেক সার্চ ইঞ্জিন 'ইয়ানডেক্স'ও একই রকম তথ্য দেখাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার থেকে এই দুই সার্চ ইঞ্জিনে জেরুজালেমকে রাজধানী হিসেবে দেখাচ্ছে। দুই সার্চ ইঞ্জিনে এ তথ্য দেখানোর পর পরই মধ্যপ্রাচ্যে সামাজিকমাধ্যমে বিষয়টি ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে। সামাজিকমাধ্যম ব্যবহারকারীরা গুগলের এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য ক্যাম্পেইন শুরু করেছে। সামাজিকমাধ্যমে অনেকে 'চেঞ্জ ডট অর্গ'-এ 'রিজেক্ট গুগল'স রিকগনিশন অব জেরুজালেম অ্যাজ ইসরাইল'স ক্যাপিটাল' শীর্ষক ক্যাম্পেইন শুরু করেছে।

পুরো বিশ্বের মতামতকে উপেক্ষা করে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে জেরুজালেমকে স্বীকৃতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর ফলে ১৯৪৮ সালে ইসরায়েল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পর এই প্রথম কোনো রাষ্ট্র হিসেবে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিল যুক্তরাষ্ট্র।

বুধবার হোয়াইট হাউজে দেয়া এক ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করেন। তার এ সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছেন বিশ্ব নেতারা।

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের বাইরে বিক্ষোভ প্রতিবাদ হয়েছে। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক সমস্ত মুসলিমকে জেগে উঠার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, যেকোনো স্থানের মুসলিমদের এটা পরিষ্কার করে জানিয়ে দিতে হবে যে, আমরা যুক্তরাষ্ট্রের এমন ঘোষণার কড়া নিন্দা জানাচ্ছি।

উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল, ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রো। তারা উভয়েই বলেছেন, ট্রাম্পের এমন সিদ্ধান্তে তাদের সমর্থন নেই।

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতেরেস বলেছেন, এটা হলো গভীর হতাশার একটি মুহূর্ত। দ্বিরাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধানের কোনো বিকল্প নেই।

বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে’র মুখপাত্র বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এমন সিদ্ধান্ত আঞ্চলিক শান্তি প্রতিষ্ঠায় কোনো সহায়ক হবে না।

ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের প্রধান কূটনীতিক ফেদেরিকা মোঘেরিনি বলেছেন, দুই রাষ্ট্রের সমাধানে বিশ্বাস করে ইইউ। মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রক্রিয়ায় আঘাত হানতে পারে এমন যেকোনো পদক্ষেপ এড়িয়ে চলা উচিত।

ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর শহর জেরুজালেম। ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় থাকা, ‘ওল্ড সিটি’খ্যাত শহরটি বিভক্ত মুসলিম, ইহুদি, খ্রিস্টান ও আর্মেনীয় বসতিতে; যেখানে আছে বিভিন্ন ধর্মের অনেক পবিত্র স্থাপনা।তাই নগরীর পবিত্রতা নিয়ে মতভেদ না থাকলেও নিয়ন্ত্রণের অধিকার নিয়ে আছে নানা বিতর্ক; আছে দফায় দফায় দখল, পুনর্দখল, ধ্বংস আর পুনর্নির্মাণের রক্তক্ষয়ী ইতিহাস। সবচেয়ে বেশি টানাপড়েন, পবিত্র ভূমি ‘হারাম আল শরিফ’-কে ঘিরে।

চলমান ইসরাইল-ফিলিস্তিন দ্বন্দ্বের কেন্দ্র এ এলাকায় অবস্থিত ইসলামের তৃতীয় পবিত্র মসজিদ আল-আকসা বা বায়তুল মুকাদ্দাসসহ মুসলিমদের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা।

এদিকে সম্প্রতি  পুরো বিশ্বের মতামতকে উপেক্ষা করে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে জেরুজালেমকে স্বীকৃতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর ফলে ১৯৪৮ সালে ইসরায়েল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পর এই প্রথম কোনো রাষ্ট্র হিসেবে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিল যুক্তরাষ্ট্র।

Bootstrap Image Preview