Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১০ সোমবার, ডিসেম্বার ২০১৮ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

ফারব্রেসের না, এপিলেও কোচ পাচ্ছে না টাইগাররা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৮, ১২:৪৮ PM
আপডেট: ১৩ মার্চ ২০১৮, ১২:৪৮ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং স্পোর্টস ডেস্ক-

শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফিতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছিলেন এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই বাংলাদেশ দলের সঙ্গে যোগ দেবেন একজন হেড কোচ। তবে বিসিবি পছন্দ করা কোচ শেষ মুহূর্তে বেকে বসায় কোচ নিয়োগ করার প্রকিয়া আবারো অন্ধকারে চলে গেলো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সূত্রের মতে, কয়েকদিন আগেই ইংল্যান্ডের সহকারী কোচ পল ফারব্রেসকে হেড কোচ হতে প্রায় রাজি করে ফেলেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কিন্তু চুক্তির শেষ মুহূর্তে বেঁকে বসায় তাকে আর পাচ্ছে না বিসিবি!

বর্তমানে ইংল্যান্ডের সহকারী কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ফারব্রেস। আর সেই কোচকেই গত সপ্তাহ হেড হোচ হতে রাজি করিয়ে সব কিছু প্রস্তুত করেছিল বিসিবি। অথচ চুক্তির কাগজপত্র পাঠানোর পর পরই বেঁকে বসেন। বিসিবিকে সাফ জানিয়ে দেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে যোগ দিতে পারবেন না।

ইসিপিএন ক্রিকইনফো দ্বারা যোগাযোগ করা হলে বিসিসি এবং ফারব্রেসকে এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান।

অথচ ৭ মার্চ বিসিবি সভাপতি কোচ নিয়োগের বিষয়টি নিশ্চিত করেই বলেছিলেন গণমাধ্যমে। জানিয়েছিলেন, কোচ নিয়োগের কাজ প্রায় শেষ। তিনি পরিচিত ব্যক্তি। বিসিবি আশা করছিল সেই পরিচিত ব্যক্তি এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই যোগ দেবে। কিন্তু আকস্মিক ঘটনায় তার আর হচ্ছে না।

তিনি বলেন, "আমরা আমাদের প্রধান কোচকে চূড়ান্ত করেছি, যারা এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশ দলের সাথে যোগদান করতে পারে"। "মুহূর্তে আমি নাম প্রকাশ করতে যাচ্ছি না কিন্তু আমি বলতে পারি যে তিনি একজন বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব, চন্ডিকা হথুরুসিংহের মতো অজানা কেউ নয়।"

বিসিবি সভাপতি অবশ্য কোচ প্রসঙ্গে ১১ মার্চ আগের দেওয়ার বক্তব্য থেকে কিছুটা হলেও সরে এসেছিলেন। বলেছিলেন, ‘আমরা নিদাহাস ট্রফি শেষ হলেই বিষয়টি চূড়ান্ত করবো। বেশ কয়েকজনের সাক্ষাৎকার নিতে চাই। আশা করছি এই মাসেই সেসব চূড়ান্ত করতে পারবো।’বিসিবি সভাপতির পরের বক্তব্যেই স্পষ্ট নতুন করে কোচ খুঁজতে হচ্ছে বিসিবিকে।

ফারব্রেসের ভালো রেকর্ডই আকৃষ্ট করেছিল বিসিবিকে। শ্রীলঙ্কার হেড কোচ হিসেবে থাকা এই কোচ ২০১৪ সালে বাংলাদেশে লঙ্কানদের সাফল্যের পেছনে ছিলেন। তারা টেস্টে, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশকে হারিয়েছিল। এমনকি চার মাসের ব্যবধানে এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তার অধীনে সফল ছিল শ্রীলঙ্কা।

এরপর ইংল্যান্ডের হয়েও ভূমিকা বজায় রেখে চলেছেন। বর্তমানে কাজ করছেন হেড কোচ ট্রেভর বেইলিসের অধীনে। বিশেষ করে সাদা বলের ক্রিকেটে ইংল্যান্ড শিবিরে এনেছেন বৈপ্লবিক পরিবর্তন। ১০টি দ্বিপাক্ষিক সিরিজের ৯টিতেই জিতেছে ইংল্যান্ড।-

ডিসেম্বরে বিসিবি রিচার্ড পাইবাস ও ফিল সিমন্সকে সাক্ষাত্কার দিয়েছে, যাদের উভয়েই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তানের সাথে নতুন ভূমিকা পেয়েছে। বিসিবি এন্ডি ফ্লাওয়ার, জাস্টিন ল্যাঙ্গার, টম মুডি, মাহেলা জয়াবর্ধনে এবং কুমার সাঙ্গাকারা সহ অন্যান্য কোচদের কাছেও পছন্দের হয়েছেন।ক্রিকইনফো।

Bootstrap Image Preview