Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ শুক্রবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৫ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

কুরআন শরীফ অবমাননা করে ফেসবুকে পোস্ট, উত্তাল নারায়ণগঞ্জ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারী ২০১৮, ১০:০৬ PM আপডেট: ১২ জানুয়ারী ২০১৮, ১০:১১ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্কঃ

শুক্রবার ১২ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় কোরআন শরিফ অবমাননা করে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয় স্থানীয় এক যুবক । পরে ছবিটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়।

এ নিয়ে নারায়ণগঞ্জে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।  শুক্রবার দুপুরে জুমার নামাজের পর মুসল্লিরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। এ সময় এলাকায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

এ সময় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ গিয়ে দ্রুত ওই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার ঘোষণা দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে ওই ব্যক্তির বড় ভাইকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ফতুল্লার পূর্ব দেলপাড়া এলাকার মজিবুর রহমান ওরফে মাছ মজিবুরের ছেলে হাসান উল ইসলাম (২৯) সম্প্রতি তার ফেসবুক আইডি থেকে কোরআন শরিফ অবমাননা করে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেন।পরে পোস্টটি দ্রুত ভাইরাল হয়ে পড়লে স্থানীয় মুসল্লিরা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন, ইসলামী কালচার সংগঠনের কুতুবপুর ইউনিয়নের সভাপতি হাফেজ মাওলানা আবুল খায়ের। এতে উপস্থিত ছিলেন- পাগলা বাজার জামে মসজিদের ইমাম আনোয়ার হোসেন জিহাদীসহ কয়েক হাজার মুসল্লি।

এ সময় খবর পেয়ে বিক্ষোভস্থলে হাজির হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করতে বক্তব্য রাখেন ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন, পরিদর্শক (তদন্ত) শাহ জালাল, পরিদর্শক (অপারেশন) মজিবুর রহমান, পরিদর্শক (আইসিটি) গোলাম মোস্তফা ও কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল আলম সেন্টু।

এলাকাবাসী জানান, মাছ মজিবুরের ৫ মেয়ে ও ২ ছেলের মধ্যে হাসান উল ইসলাম সবার ছোট। ছেলেমেয়ে প্রত্যেকেরই বিয়ে দেয়া হয়েছে। হাসান উল ইসলাম ২ বছর আগে একই এলাকায় বিয়ে করেছেন। কয়েক বছর ধরে মাদক সেবন করে উশৃংখল চলা ফেরা করে আসছে।

তাকে স্থানীয়রা মাদকাসক্ত হিসেবে চিনে। রূপগঞ্জে একটি ইটভাটা ও ফতুল্লায় প্রচুর পরিমাণের অর্থসম্পদ রয়েছে মাছ মজিবুরের। বাড়ির সামনে রয়েছে একটি মার্কেট।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন জানান, বিক্ষোভ সমাবেশে গিয়ে আমি লোকজনকে শান্ত করেছি। দ্রুত হাসান উল ইসলামকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে। ঘটনার পর থেকে মাছ মজিবুরের পরিবারের লোকজন আত্মগোপনে রয়েছে। ঘটনা সম্পর্কে জানতে হাসানের বড় ভাই হেদায়েত উল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। তার বাড়িতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

Bootstrap Image Preview