Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২২ বৃহস্পতিবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

কে হবেন আ.লীগের মেয়র প্রার্থী, ঘোষণা রাতে

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারী ২০১৮, ০৪:৪৭ PM
আপডেট: ১৬ জানুয়ারী ২০১৮, ০৪:৪৭ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্কঃ ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন কে পাচ্ছেন, তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দলটির সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাসভবন গণভবনে দলের মনোনয়ন বোর্ডের সভায় চূড়ান্ত করা হবে দলীয় প্রার্থী। এর আগে গতকাল সোমবার বাদ্যযন্ত্রের তালে আর কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় মনোনয়পত্র জমা দেন মেয়র নির্বাচনে দলের টিকেট প্রত্যাশী ১৮ প্রার্থী। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে ডিএনসিসি উপনির্বাচন। এই ভোটকে সামনে রেখে গত ১৩, ১৪ ও ১৫ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র বিক্রি করে আওয়ামী লীগ। তিন দিনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ১৬ জন এটি সংগ্রহ করেছেন। দলটির নীতিনির্ধারকরা জানান, যে ক’জন মনোনয়নপত্র কিনেছেন তাদের মধ্যে আতিকুল ইসলাম ও এইচবিএম ইকবাল আলোচিত। বাকিদের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা আগ্রহীদের তালিকায় আরও আছেন কবি রাসেল আশিকী, ব্যবসায়ী আদম তমিজি হক, মনিপুর স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন, শিক্ষক শাহ আলম, এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক হেলাল উদ্দিন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জোবায়ের আলম, আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য মমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদী। অন্যরা হলেন তেজগাঁও থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক কাউন্সিলর শামীম হাসান, ব্যবসায়ী আবেদ মনসুর, সাবেক সেনা কর্মকর্তা ইয়াদ আলী ফকির, যুবলীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আবুল বাশার, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র ওসমান গণি, জামান ভূঞা, আসমা জেরিন ঝুমু। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মনোনয়নপত্র সংগ্রহকারীদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হবে। এরপর দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডে প্রার্থীর বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাবে দলটি। দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকের কথা জানানো হয়। এদিকে ডিএনসিসি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে সংকেত পেয়ে ভোটের জন্য জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন আতিকুল ইসলাম। তিনি গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলে জনসংযোগের পরামর্শ পেয়েছেন। আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আগে যাকে সবুজ সংকেত (আতিকুল ইসলাম) দিয়েছিলেন, তিনিই আমাদের চূড়ান্ত প্রার্থী হবেন মনে হচ্ছে।’ তবে রাজধানীতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী আতিকুল ইসলামকে কাজ চালিয়ে যেতে পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু তাকে কোনও সিদ্ধান্ত জানাননি। এবারের ভোটের লড়াইয়ে দাঁড়াতে হলে প্রার্থিতা জমা দেওয়ার শেষ সময় ১৮ জানুয়ারি। আনিসুল হকের মৃত্যুতে ফাঁকা হওয়া ডিএনসিসি মেয়র পদ পূরণে এ উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
Bootstrap Image Preview