Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ মঙ্গলবার, অক্টোবার ২০১৮ | ১ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

লাখো প্রাণ বাঁচবে মাটির অ্যান্টিবায়োটিক

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১২:৪৭ PM
আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১২:৪৭ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক-

যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা মাটির নমুনার ভেতরে অ্যান্টিবায়োটিকের নতুন একটি পরিবারের খোঁজ পেয়েছেন। যেসব সংক্রমণের চিকিৎসা খুবই কঠিন, সেগুলোর বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রাকৃতিক উপদানের মিশ্রণে নতুন এই অ্যান্টিবায়োটিক কাজে লাগানো সম্ভব হবে।

রকফেলার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা গত ৩০ বছরের মধ্যে এই প্রথম অ্যান্টিবায়োটিক আবিষ্কারের নতুন আশার কথা শুনিয়েছেন।

বিজ্ঞানীরা বলেন, মাটির মিশ্রণ পরীক্ষা করে দেখা গেছে এর ভেতরে থাকা ম্যালাসিডিনস নামে অ্যান্টিবায়োটিক পরিবার বিভিন্ন সুপারবাগ ধ্বংস করতে পারে। এমনকি এতে এমআরএসএর মতো সুপারবাগও শেষ হয়ে যাবে।

ন্যাচার মাইক্রোবাইয়োলজি নামে একটি জার্নালে এ নিয়ে নিবন্ধ ছাপা হয়েছে।

বর্তমানে বিশ্ব স্বাস্থ্যের জন্য বড় হুমকি হিসেবে দেখা হচ্ছে ওষুধ-প্রতিরোধী রোগকে। মানুষ ক্রমাগত রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলছে এবং রোগ নিরাময়ে ওষুধ কোনো ভূমিকা রাখতে পারছে না। সেক্ষেত্রে নতুন এই অ্যান্টিবায়োটিক আশার কথা শুনিয়েছে বিশ্বের কোটি মানুষকে।

ওষুধে কাজ না হওয়ায় বিভিন্ন রোগে প্রতি বছর সাত লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটছে। নতুন এ্যান্টিবায়োটিক এই সংখ্যা হয়তো অনেকটাই কমিয়ে দিতে পারবে।

সুপারবাগ এমআরএসএ ইঁদুরের ত্বক আক্রান্ত হলে নতুন এই অ্যান্টিবায়োটিক তাতে প্রয়োগ করা হয়। বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, তাতে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ঘটেনি।

এর আগে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওষুধে কাজ হয় না, এমন রোগ সন্ত্রাসবাদের চেয়েও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে, যা আধুনিক বিশ্বকে উনিশ শতকের অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারে, যখন সামান্য সংক্রমণ কিংবা অস্ত্রোপচার জীবনকে হুমকির মুখে ফেলে দিত।

Bootstrap Image Preview