Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ রবিবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

১০ টাকার বিরিয়ানি নিয়ে আলোচনার ঝড়! (ভিডিও)

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ০৫:৩৯ PM
আপডেট: ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ০৫:৪০ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক-

মাত্র ১০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে ডিমসহ পুরো এক প্লেট বিরিয়ানি। পুরাতন ঢাকার বনগ্রাম নামক একটি স্থানে এই ১০ টাকায় বিরিয়ানি বিক্রি হয়। এই বনগ্রাম ঠাটারিপাড়ার কাছে। অর্থাৎ রাজধানী মার্কেটের নিকটেই। লালের হোটেল নামে পরিচিত একটি হোটেলে এই বিরিয়ানি বিক্রি হয়।

 

এখন প্রশ্ন দাঁড়াচ্ছে এই দুর্মূল্যের বাজারে তিনি কি করে মাত্র ১০ টাকায় বরিয়ানি খাওয়াচ্ছেন? আর ১০ টাকার এই বিরিয়ানি কি স্বাস্থ্যসম্মত? নাকি জনসেবামূলক উদ্দেশে এই বিরিয়ানি বিক্রি হচ্ছে?

এদিকে গত কয়েকদিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়জুড়ে চলছে ১০ টাকার বিরিয়ানি নিয়ে আলোচন-সমালোচনা। শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়া ঝড়। আলোচনা-সমালোচনা ও ক্রমাগত ট্রল।

কিন্তু হুট করে এই ১০ টাকার বিরিয়ানি আলোচনায় এলো কেন? ফেসবুকে বেশকয়েকটি ফুড গ্রুপ রয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, এই ১০ টাকার বিরিয়ানির ছবি ও ভিডিও। এরপর থেকে এই বিরিয়ানির মান নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।

জানা যায়, লাল নামের এক ব্যক্তি রয়েছে তার ভাই তানভীর নিজস্ব উদ্যোগে ১০ টাকার বিরিয়ানি বিক্রি শুরু করেন। এটি মূলত তানভীরের একটি উদ্যোগ, কোনো ব্যবসা নয়।

ব্যবসায়ীক কোনো উদ্দেশ্য নেই, শুধু পুরান ঢাকার ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্যই তিনি এই কাজ করে যাচ্ছেন বলে জানা যায়। কারো যদি ১০ টাকা দেয়ার সামর্থও না থাকে তাহলেও তানভীর তার হাতে বিরিয়ানি তুলে দেন। কোনো শিশুর হাত থেকে যদি বিরিয়ানির প্লেট পড়ে যায় তাহলে তার হাতে নতুন প্লেটে বিরিয়ানি তুলে দেন তানভীর।

১০ টাকার বিরিয়ানির মান নিয়ে যদিও প্রশ্ন আছে তারপরেও মাত্র ১০ টাকায় কীভাবে এই বিরিয়ানি বিক্রি হচ্ছে সেটা নিয়ে যেন কৌতুহলের কোনো শেষ নেই। তবে পুরান ঢাকার অধিবাসীরা অবশ্য এর 'সমুচিত' জবাব দেয়ার চেষ্টাও করছেন।

অপরদিকে ১০ টাকার বিরিয়ানি আলোচনা-সমালোচনার শুরুটা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাই এখন অনেকেই বলছেন, শুধু শুধু এমন একটি কাজ, 'অহেতুক' একটি উদ্যোগকে ভাইরাল করা হয়েছে।

অনেকে কঠিন মুখে এর সমালোচনা করছেন। শাকিল নামের একজন লিখেছেন, কয়েক দিন যাবত লক্ষ্য করছি,১০টাকারবিরিয়ানি নিয়া অনেকে অনেক কথা বলছে,কেউ কেউ আবার ট্রল বানায়াইয়া হাসির ঝুলি হিসেবে ছড়াইয়া দিচ্ছে। একবার চিন্তা করছেন যে,এই ১০টাকারবিরিয়ানি কত গরিব,দুখী অসহায় মানুষদের জন্য কতটা প্রয়জন?না করেন নাই।আর তাই যদি করতেন তাইলে১০টাকারবিরিয়ানি নিয়া এই রকম ট্রল বানাইতেন না। তাই বলছি এইসব বন্ধ করুন অন্তত তাদের মুখের দিকে তাকাইয়া হইলেও।কারন,এইসব হাসির ট্রল বানানো দেইকা তারা ১০টাকারবিরিয়ানি আর নাও বানাইতে পারে। so,please stop it.

দীপা নামের একজন লিখেছেন, আমি জানি এটা কোথায়। এমনকী এই লোকটাকেও আমি চিনি। পিচ্চিকাল থেকে এই বিরিয়ানি আমি খেয়ে আসছি। এই ১০ টাকার বিরিয়ানি গুলো মূলত খেটে খাওয়া পথ শিশু কিংবা অভাবীদের জন্য। আপনার যেখানে এক বেলা বিরিয়ানি খেতে ৬০০ টাকা চলে যায় সেখানে তাদের এই ৬০০ টাকায় পুরো মাসের খাবার খায়।

সাবরিনা সাবা বলছেন, বকের মাংস না কাকের মাংস, হাত দিয়ে দিতেছে না, জায়গা চুল্কায়ে দিতেছে, এগুলা এখানে লিখার কোনও মানে নাই। অন্য রেস্টুরেন্ট গুলাতে তোমাকে রান্নাঘরে ঢুকায়ে রান্না করে না।যেখানে প্লেটে কাচা মরিচ দিয়ে বলবে ওটাই ১০ টাকা। আর খাবার জিনিসের আবার গরিব বড়লোক হয় জানতাম না। খাওয়ায় পর সব তো এক জায়গায় ই ছাড়।

অপরদিকে কিছু কিছু পেজ থেকে এই '১০টাকারবিরিয়ানি' নিয়ে ট্রোল বানানো থেকে বিরত থাকার জন্য উপদেশমূলক পোস্ট দেওয়া হচ্ছে।

সাইবার ৭১ নামের একটি পেজের পোস্টে বলা হয়েছে, ১০টাকারবিরিয়ানি কতোখানি স্বাস্থ্য সম্মত হবে, কি দিয়ে তৈরী করা হয়েছে এসব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রোল থেকে বিরত থাকুন।

১০ টাকায় বিরিয়ানি বাংলাদেশের অনেক জায়গায় ই বিক্রি করে.. সেটা পথ শিশু এবং অনাহারীদের জন্য। আপনি ১০টাকারবিরিয়ানি নিয়ে ট্রোল করা মানে হচ্ছে তাদের আহার নিয়ে ট্রোল করা। আপনি সেই দোকানে গিয়ে জিজ্ঞেস করুন বিরিয়ানি ফুল প্লেট কতো!! অবশ্যই ৮০/১০০ টাকা। আপনি চেয়েছেন১০টাকার, দোকানী সেটা দিলেও দোষ হয়ে যায়। বাহ..!!

এই ১০ টাকার বিরিয়ানি গুলো মূলত খেটে খাওয়া পথ শিশু কিংবা অভাবীদের জন্য। আপনার যেখানে এক বেলা বিরিয়ানি খেতে ৬০০ টাকা চলে যায় সেখানে তাদের এই ৬০০ টাকায় পুরো মাসের খাবার খায়। থাকুক না ভাই তারা তাদের মতো, সোশ্যাল মিডিয়াতে গবেষণা করার মতো অনেক টপিক আছে; সেগুলো নিয়ে বিনোদন নিন। দুই চামচ চালের সাথে এক টুকরো হাড্ডির এই ১০ টাকার বিরিয়ানি আপনার জন্য তৈরী করা হয় নি, এটা নিয়ে ট্রোল করার অধিকার ও আপনার নেই।

ভিডিও- https://www.facebook.com/Opekka.officiall/videos/2034932696777519/
Bootstrap Image Preview