Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ বুধবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৯ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

মুকুলকাণ্ডে নয়া মোড়, দীর্ঘ চিঠি অভিষেকের, পাল্টা অভিযোগ আরও মারাত্মক

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর ২০১৭, ১১:২১ PM
আপডেট: ১৩ নভেম্বর ২০১৭, ১১:২১ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক- সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুকুল রায়কে আইনি নোটিশ পাঠালেন তৃণমূল সাংসদ তথা দলের যুব সংগঠনের রাজ্য সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য বিজেপি দফতরে পাঠানো এই নোটিশে বলা হয়েছে, ‘‘বিশ্ববাংলা সংক্রান্ত মুকুল রায়ের সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন।‘জাগো বাংলা সংক্রান্ত যাবতীয় অভিযোগও ভিত্তিহীন। অভিষেক বিশ্ববাংলা বা জাগোবাংলার লোগোর মালিক নন। তিনি কোনও শেয়ারহোল্ডারও নন।’’ এই সংক্রান্ত মন্তব্যের জন্য ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মুকুল রায় ক্ষমা না চাইলে ফৌজদারি ও দেওয়ানি দুই ধারাতেই মানহানির মামলা করা হবে। চিঠি পাঠিয়েছেন অভিষেকের আইনজীবী সঞ্জয় বসু। ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, অভিষেকের বিরুদ্ধে লাভের জন্য তৃণমূলের প্রতীক ব্যবহারের অভিযোগও মিথ্যা। এটা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেসের সম্মানহানির চেষ্টা। মুকুল রায় জনসভায় যা বলছেন, নথি দেখাচ্ছেন, তা জাল বলেও দাবি করা হয়েছে। আইনি নোটিশে দাবি করা হয়েছে, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে ক্ষমা চাইতে হবে মুকুলকে। না হলে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ করা হবে। গত শুক্রবার ধর্মতলার জনসভায় মুকুল রায় বলেন, ‘‘বিশ্বকাপ ফুটবল স্পনসর করেছিল বিশ্ববাংলা। এই বিশ্ববাংলা কোনও সরকারি প্রতিষ্ঠান নয়, এটা একটা কোম্পানি। যার মালিকের নাম অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ঠিকানা, ৩০বি, হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিট।’’ এই অভিযোগ খারিজ করে আগেই স্বরাষ্ট্রসচিব অত্রি ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘এটা একেবারেই ভুল এবং ভিত্তিহীন! বিশ্ববাংলা ব্র্যান্ড এবং লোগোটি পুরোপুরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৃষ্টি। উনি স্বেচ্ছায় ওই ব্র্যান্ড এবং লোগোটি রাজ্য সরকারকে দিয়েছেন।’’ এর জবাবে স্বরাষ্ট্রসচিবকে চিঠি পাঠিয়েছেন মুকুল রায়। অন্য দিকে, মুকুল রায় শাসক দলের পরে যে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করতে চলেছেন তাও স্পষ্ট করলেন। রবিবার রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব ও প্রিন্সিপাল সেক্রেটারির বিরুদ্ধে কেন্দ্রের কাছে নালিশ করেছেন। প্রশাসনের পরে এবার টার্গেট পুলিশ। এদিন দিল্লি হাইকোর্টে কলকাতা ও রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে তাঁর মোবাইল ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ তুলে মামলা করেছেন মুকুল রায়। এ নিয়ে তিনি পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চান বলেও জানিয়েছেন। কেন্দ্রের কাছেও এই সংক্রান্ত তদন্তের আবেদন জানাতে পারেন মুকুল রায়।
Bootstrap Image Preview