Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৮ বৃহস্পতিবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৩ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘বাধা দিলেই গণধর্ষণ করাতেন স্বামীজি’

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:০৯ PM
আপডেট: ২১ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:০৯ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক-

ফের একবার স্বঘোষিত ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের অভিযোগ। ভারতের উত্তর প্রদেশের বস্তি জেলার সন্ত কুটির আশ্রমের একাধিক সাধুর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন ওই আশ্রমেরই ৪ সাধ্বী।

আশ্রম থেকে কোনওক্রমে পালিয়ে জেলা পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হন ওই সাধ্বীরা। সেখানে তাঁরা কীভাবে শিষ্যাদের যৌন নির্যাতন করা হয়, তার অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্তদের মধ্যে, স্বামী সচ্চিদানন্দ সহ-চার সাধুর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযুক্তদের মধ্যে ২ শিষ্যাও রয়েছে। অভিযোগ, অন্য শিষ্যাদের যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত সাধুদের সাহায্য করত তারা।

নির্যাতিতারা পুলিশকে জানিয়েছেন, বিভিন্ন ভাবে লোভ দেখিয়ে কিশোরী ও যুবতীদের আশ্রমে নিয়ে আসত ওই ২ সাধ্বী। আশ্রমে প্রবেশের পর থেকেই শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চলত। প্রায় প্রতি রাতেই ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের শিকার হতে হয় অন্য শিষ্যাদের। বাধা দিলে গণধর্ষণও করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ‘সাধ্বীদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাঁদের মেডিক্যাল পরীক্ষা করানো হচ্ছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।’

দিল্লি, মুম্বাই ছাড়াও মধ্যপ্রদেশ, বিহার, ছত্তিশগড়ে স্বামী সচ্চিদানন্দের যথেষ্ট নাম রয়েছে। ভক্তসংখ্যাও অনেক। অভিযোগ দায়ের করা হলেও, এখনও গ্রেপ্তার হননি স্বঘোষিত এই স্বামীজি। প্রসঙ্গত, চলতি বছরেই ২ শিষ্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে হাজতবাস হয়েছে স্বঘোষিত ধর্মগুরু গুরমিত সিং।

Bootstrap Image Preview