Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ বুধবার, নভেম্বার ২০১৮ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

বালিয়াডাঙ্গীতে ৪ দফা দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৮, ০৮:০৮ PM
আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৮, ০৮:০৮ PM

bdmorning Image Preview


বালিয়ডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি:

চলতি সনে পাস করা বিবিএ শিক্ষার্থীদের নিয়মিত এমবিএ নিশ্চিতকরণসহ অন্যান্য সিএসই ও এগ্রিকালচার অনুষদের নিয়মিত মাস্টার্স নিশ্চিতকরণসহ ৪ দফা দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে দিনাজপুরের হাজী মুহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ শহীদ আকবর আলী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কলেজের অনার্স পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ও পড়ুয়া ৪ শতাধিক শিক্ষার্থী।

আজ বুধবার দুপুরে কলেজ ক্যাম্পাসে এ বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে তারা। এ সময় তারা ‘শিক্ষা নিয়ে দুর্নীতি, চলবে না চলবে না, প্রশাসন, প্রশাসন, ভুয়া, ভুয়া' বলে স্লোগান দেয় ছাত্ররা।

কলেজ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালে দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় একমাত্র অধিভূক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শহীদ আকবর আলী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কলেজে অর্নাস কোর্স খোলা হলে ৭০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হলেও বতর্মানে ৬১ জন রয়েছে। শিক্ষার্থীরা ৪ বছর মেয়াদী বিবিএ সম্পন্ন করেন। চলতি মাসের ২৫ তারিখে নিয়মিত এমবিএ ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীরা হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রূপালী ব্যাংক একাউন্টে ৭শ' টাকা জমা দিয়ে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করেন এবং ভর্তি ফরম পূরণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা দিতে যান।

তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফরম জমা না নেওয়ায় শিক্ষার্থীরা হতাশা হয়ে কলেজে ফিরে অধ্যক্ষের কাছে সমাধান চান। অধ্যক্ষ ড. তৈয়বা খাতুন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে বিষয়টি সুরাহা করতে ব্যর্থ হলে শিক্ষার্থীরা গত ২৭ জুন শিক্ষার্থীরা কলজের অধ্যক্ষ ও কয়েকজন শিক্ষককে অবরুদ্ধে করে রাখেন এবং শিক্ষার্থী পরিবহণের কাজে ব্যবহৃত একটি গাড়ি ভাংচুর এবং অবরুদ্ধ থাকা বিল্ডিংয়ের সামনে আগুন দেয়।

ওইদিন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আঃ মান্নান ও থানা পুলিশের একটি দল এবং ঠাকুরগাঁও থেকে দাঙ্গা পুলিশ ক্যাম্পাসে এসে প্রায় ৫ ঘন্টাব্যাপী শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করলে শিক্ষার্থীরা ৪ দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে বাড়ি ফিরে যায়।

এদিকে ঘটনার ১৫ দিন পেরিয়ে গেলেও কোন সমাধান দিতে পারেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে অধিভুক্ত শিক্ষার্থীদের আলাদা সনদপত্র প্রদান এবং নিয়মিত মাস্টার্স ভর্তি কোর্সে পড়ার সুযোগ না দেয়ার দাবিতে আন্দোলন করেছে হাবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলন চলাকালীন সময়ে গত ৫ জুলাই হাবিপ্রবির ভিআইপি কনফারেন্স রুমে উপচার্য প্রফেরস ডা. মু. আবুল কাসেম বলেন, তোমাদের আন্দোলন এবং দাবি যৌক্তিক। অধিভুক্ত কলেজকে আলাদা সনদপত্র প্রদান এবং নিয়মিত এর পরিবর্তে সন্ধ্যাকালীন কোর্সে মাস্টার্স করতে পারবে বলে তিনি জানান।

এ প্রসঙ্গে অধ্যক্ষ তৈয়বা খাতুন বলেন, এফিলিয়েটড কলেজগুলোর শিক্ষার্থীদের সরাসরি এমবিএ ভর্তির বিষয়ে কিছু জটিলতা রয়েছে। শিক্ষার্থীরা না বুঝেই উত্তেজিত হয়ে পড়েছে। আমি হাজী দানেশ বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি স্যারের সাথে কথা বলেছি। একটি সমাধান হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ. মান্নান বলেন, বিষয়টি সম্পূর্ণ হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অধীনে। আমরা সেখানে যোগাযোগ করে সুরাহা করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ শিক্ষাজীবন অবশ্যই গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে।

Bootstrap Image Preview