Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২০ শনিবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৪ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দিতে সোহরাওয়ার্দীতে নেতাকর্মীদের ঢল

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০১৮, ১২:৩৩ PM
আপডেট: ২১ জুলাই ২০১৮, ০২:২৯ PM

bdmorning Image Preview


রায়হান শোভন।।

উন্নয়ন ও অর্জনে অসামান্য অবদান রাখায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আজ বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গণসংবর্ধনা প্রদান করা হবে। এ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে যোগ দিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দলে দলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা আসতে শুরু করেছেন।

আজ শনিবার বিকাল ৪টায় জনসভা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল থেকেই উদ্যান এলাকায় নেতাকর্মীদের ভিড় চোখে পড়ার মতো। সকাল থেকেই রাজধানী ও আশপাশের এলাকা এবং ঢাকার বাইরে থেকে নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে উদ্যানে এসে প্রবেশ করছেন।

গাড়িতে বাদ্যযন্ত্র নিয়ে নেচে-গেয়ে সমাবেশস্থলে আসছেন অনেকে। সবার হাতে রয়েছে ব্যানার-ফেস্টুন। অনেকের গায়ে একই রঙের টি-শার্ট, মাথায় একই রঙের ক্যাপ। জয় বাংলা স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠেছে উদ্যান এলাকা।

সংবর্ধনাস্থল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানসহ রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, যে মঞ্চে শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা দেয়া হবে সেটা নির্মাণ করা হয়েছে ইংরেজি বর্ণ ‘এল’ আকৃতিতে। অনুষ্ঠান স্থলে দেশের বরেণ্য চিত্র শিল্পী হাশেম খানের তত্ত্বাবধানে আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৬টি ছবি নিয়ে আয়োজন করা হবে চিত্র প্রদর্শনীর। এ প্রদর্শনীতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ছবিসহ থাকবে তার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে লেখা বইসমূহ। এছাড়াও প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের রোজনামচা বই দুটিও স্থান পাবে।

সংবর্ধনাস্থলের বাইরেও রাস্তাগুলো নান্দনিকভাবে সাজানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে সংবর্ধনাস্থলে যে সড়ক দিয়ে আসবেন সে সড়কগুলোতে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন ও অর্জনের ছবি সংবলিত পোস্টার-ফেস্টুন ও ব্যানার লাগানো হয়েছে। পুরো সোহরাওয়ার্দী উদ্যান আলোকসজ্জা করা হয়েছে। দলীয় নেতা-কর্মীদের পদভারে পুরো সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক উৎসবমূখর পরিবেশের সৃষ্টি হবে। মৎস্য ভবনের সামনে গণসংবর্ধনাস্থলের প্রবেশমুখে বিশাল একটি তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কেমন লোক হবে তা সাংবাদিকদের ক্যামেরাই বলে দেবে। শেখ হাসিনা বাংলাদেশের জন্য গর্ব। তার নেতৃত্বে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে। সে কারণে এ সংবর্ধনা কৃতজ্ঞ জাতির পক্ষ থেকে। আমরা স্বাধীনতা সংগ্রামের নেতৃত্বদানকারী জাতির জনকের কন্যাকে সংবর্ধনা দিচ্ছি।

আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল বলেন, গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। এ অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের জাতীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখবেন। মঞ্চে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র এবং তার তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। আনুষ্ঠানিকভাবে বিকেল ৩টা থেকে গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠান শুরু হবে। অনুষ্ঠানের শুরুতে বাঙালির ইতিহাস ও ঐতিহ্য সংবলিত ত্রিশ মিনিটের একটি পরিবেশনা থাকবে।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছাড়াও শাহবাগ, টিএসসি এলাকা, দোয়েল চত্বরেও ভিড় বাড়ছে নেতাকর্মীদের। উদ্যানের চারটি গেট দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করার জন্য দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন সবাই। এদিকে আওয়ামী লীগের এই গণসংবর্ধনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি করছে।

Bootstrap Image Preview