Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ মঙ্গলবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে শাজাহান বাচ্চুর লাশ দাফন

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৮, ০৭:৫৮ PM
আপডেট: ১৪ জুন ২০১৮, ১০:২৮ PM

bdmorning Image Preview


মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি:

মুন্সীগঞ্জ জেলার কমিউনিস্ট পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক, কবি, প্রকাশক ও ব্লগার শাজাহান বাচ্চুর লাশ ময়নাতদন্তের পর দাফন করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় কাকালদি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে কাকালদি কবরস্থানে তার মায়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।

নিহতের ভাতিজা ইরান মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন এবং তিনি বলেন, এলাকাবাসী প্রথমে লাশ দাফনে বাধা দিলেও পরে মধ্যপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম হাজীর হস্তক্ষেপে লাশ দাফ করা হয় লাশ দাফনের সময় ইউপি চেয়ারম্যান এবং থানা প্রশাসন উপস্থিত ছিল। এ ঘটনায় নিহতের ছোট বউ আফসানা জাহানা বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৪ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেছে।

আজ মঙ্গলবার ১২টার দিকে র‌্যাব-১১ এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আশিক বিল্লাহ, ঢাকা রেঞ্জের এ্যাডিশনাল ডিআইজি মো. আসাদুজ্জামান, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম, র‌্যাব ১১ মুন্সীগঞ্জ ভাগ্যকুল এর ক্যাম্প কমান্ডার নাহিদ হাসান জনি, সিরাজদীখান সার্কেল আসাদুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ্যাডিশনাল ডিআইজ আসাদ বলেন, উনি ব্লগার কিনা জানি না তবে সবকিছু মাথায় রেখেই আমরা কাজ করছি।

র‌্যাব-১১ এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আশিক বিল্লাহ জানান, আমরা তদন্ত শুরু করেছি। আমাদের হেড অফিস এবং আমাদের মুন্সীগঞ্জ টিম কাজ করছে, টেকনোলেজি এবং ফিজিক্যাললি এ দুটো নিয়েই আমরা কাজ করছি।

নিহত শাজাহান বাচ্চুর দ্বিতীয় স্ত্রী আফসানা জাহান বলেন, আমার স্বামী ফেইসবুকে লেখালেখি করত মাঝে-মধ্যে, আমাকে বলত জঙ্গিরা আমাকে হত্যার হুমকি দেয়।

এর পুর্বে গত সোমবার সন্ধ্যায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক, কবি, প্রকাশক ও ব্লগার শাজাহান বাচ্চু (৬৫) নিহত হন। উপজেলার মধ্যাপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব কাকালদি গ্রামের তিন র্স্তাার মোড়ে তার বাড়ি থেকে আধা কি.মি. পূর্ব দিকে এ ঘটনা ঘটে।

শাজাহান বাচ্চুর ১ম ঘরের ছোট মেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার ছাত্রী দূর্বা (২০) জানান, লাশ দেখার আগ পর্যন্ত বিশ্বাস করতে পারি নাই বাবা মারা গেছে। জানি না কারা মারতে পারে।

সিরাজদিখান থানার ওসি আবুল কালাম জানান, আমরা আমাদের সর্বাত্বক প্রচেষ্টা দিয়ে সকল ইউনিট এ বিষয়ে যারা কাজ করছে আমরা সর্বাত্বক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি এটার সাথে যারা জড়িত আছে, তাদেরকে আইনের আওতায় এনে এই রহস্যের উদঘ্টন করব।

উল্লেখ্য, পূর্ব কাকালদী (মুন্সীগঞ্জ-শ্রীনগর সড়কের) তিন রাস্তার মোড়ে আনোয়ার হোসেনের ফার্মেসী থেকে বেড় হওয়ার পর শাজাহান বাচ্চু খুন হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে ২টি মোটরসাইকেলে ৪ জন লোক এসে তাকে ধরে রাস্তায় নিয়ে গুলি করে হত্যা করে। এ সময় সিরাজদিখান থানার এএসআই মাসুম ঐ রাস্তা দিয়ে মুন্সীগঞ্জ থেকে থানার দিকে যাচ্ছিলেন।

শাজাহান বাচ্চু উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম কাকালদি গ্রামের মরহুম মমতাজ উদ্দিনের ছেলে। সে জেলা কমিনিস্ট পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এছাড়া সাংবাদিক, কবি, প্রকাশক ও ব্লগার ছিলেন। ঢাকার বাংলাবাজারে বিশাকা প্রকাশনীর সত্বাধিকারী ও সাপ্তাহিক আমাদের বিক্রমপুর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছিলেন।

Bootstrap Image Preview