Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ মঙ্গলবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

এবার দোলনচাঁপায় চড়ে মিরপুর থেকে মতিঝিল যাবে রাজধানীর নারীরা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২ জুন ২০১৮, ১১:৫২ AM
আপডেট: ০২ জুন ২০১৮, ০১:১৬ PM

bdmorning Image Preview


মেরিনা মিতু।।

রাজধানীতে প্রথমবারের মতো বেসরকারি উদ্যোগে নারীদের জন্য চালু করা হচ্ছে বাস সার্ভিস। র‍্যাংগস ও এইচআর গ্রুপের উদ্যোগে এ বাস সার্ভিস চালু করা হয়। নতুন এই বাস সার্ভিসটির নাম রাখা হয়েছে দোলনচাঁপা। আজ সকাল ১০টায় এই বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করেন সড়ক, পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

র‍্যাংগস গ্রুপের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর জনাব সোহানা চোধুরী জানান, একজন মেয়ে হিসেবে আমি যদি এ উদ্যোগ না নিতে পারি তাহলে আর কে নিবে। তবে এটা আসলে কোনো সমাধান না। টোটাল ৭ টি বাস নামানো হবে। আশা করবো এর আগেই এই নিরাপত্তা নিয়ে সঠিক কোনো সমাধান হয়ে যাবে। কারণ আমি চাইনা আমার মেয়ে বড় হয়ে দেখুক আমি তাদের জন্য আলাদা কোনো ব্যবস্থা রেখেছি। তাদের আলাদা করেছি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সড়ক, পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশে মহিলা বাস সার্ভিস এটিই প্রথম না। এর আগেও বিআরটিসিতে এই সার্ভিস ছিল যা কোনো না কোনো ভাবে এই মুহুর্তে তেমন কার্যকর নয়। সেখানে সোহানার এই কার্যক্রমকে আমি সাধুবাদ জানাই। তাছাড়া আমাদের দেশে কোনো কিছুর শুরুটা যেমন ঢাক ঢোল পিটিয়ে হয় তেমনি শেষটা হয় প্যানপ্যানানি দিয়ে। তবে আমি আশা করবো এই উদ্যোগটা যেন গৌরবের সাথে চলে।

মহিলাদের নিরাপত্তার কথা ভেবে বাসে রাখা হয়েছে ৫ টি সি সি ক্যামেরা, ফ্যান, অটোমেটিক দরজা, মহিলা কন্ট্রাকটর। দোলনচাঁপা বাসটি মিরপুর ১২ থেকে থেকে ১০ নাম্বার কাজীপাড়া-ফার্মগেট হয়ে প্রেসক্লাবের সামনে দিয়ে মতিঝিল পর্যন্ত যাবে।

বাসের হেল্পার দোলনা জানান, আগে গার্মেন্টস এ কাজ করতাম। এখন হেল্পার। ভাবতেই ভালো লাগছে। একটু অদ্ভুতও লাগতেছে।

ঢাকা সড়ক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্লাহ বলেন, র‍্যাংগস গ্রুপ যে উদ্যোগ নিয়েছে তা বাংলাদেশে প্রথম। আমরা আমাদের থেকে সর্বোচ্চ দিয়ে যাবো যাতে এই উদ্যোগ আরো সফল হয়।

র‍্যাংগস গ্রুপের চেয়ারম্যান বলেন, আমি ছোট থেকে দেখে এসেছি আমার বাবার কথায় সংসার চলতো। তাই এটা ভেবেই বড় হয়েছি ছেলেরাই বেশি ক্ষমতাবান। তাই আমি কখনোই ভাবি নাই মেয়েদের জন্য আলাদা বাস হবে। আমি খুব করে চাইবো আগামীতে এমন কিছু হোক যেখানে এই ভেদাভেদ না থাকে। একটা চাকরিরত মায়ের জন্য তাদের সন্তানেরা অপেক্ষায় থাকে। কিন্তু তারা বাসে উঠতে পারেনা। কিংবা সিট নাই বলে তাদের নামিয়ে দেয়। তাই আমি বলবো এটি সেই সমস্যা রসাময়িক সমাধান এনে দিবে। তবে পুরোপুরি না। আমাদের জেন্ডার নিয়ে ভেদাভেদের চিন্তা পাল্টালেই কেবল এই সমস্যা পুরোপুরি বদলাবে।

Bootstrap Image Preview