Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ মঙ্গলবার, অক্টোবার ২০১৮ | ১ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

স্কুলছাত্রী মেয়ের সাথে জোড় করে শারীরিক সম্পর্ক, বাবার গলায় জুতার মালা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩ এপ্রিল ২০১৮, ১০:৪৩ PM
আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০১৮, ১০:৪৩ PM

bdmorning Image Preview


সোহেল কান্তি নাথ, বান্দরবান প্রতিনিধিঃ

বান্দরবানে পিতার হাতে ধর্ষিত হয়েছে পঞ্চম শ্রেনীতে পড়ুয়া ১৪ বছরের এক মেয়ে। শহরের বনরূপা পাড়ার ছিদ্দিক নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষক পিতা সাইদুর ইসলাম (৫২) কে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের নিকট সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।

গত রবিবার রাতে বাসায় কেউ না থাকা অবস্থায় মেয়ের সাথে জোড় করে শারীরিক সম্পর্ক করে। পরে মেয়ে ঘটনাটি প্রতিবেশীদের জানালে মঙ্গলবার সকালে এলাকাবাসী তাকে ধরে মারধর করে জুতার মালা গলায় দিয়ে এলাকায় ঘোরায় পরে পৌর কাউন্সিলর ধর্ষক সাইদুল (৫২) কে পুলিশে সোপর্দ করে।

ধর্ষিতার বড় বোন লাকী আক্তার জানান, গত ১ এপ্রিল আমার সৎ মা নানার বাড়ি বরিশালে বেড়াতে যায়। মা বাড়ীতে না থাকায় ঐ সুযোগে রবিবার দিবাগত রাতে আমার বাবা আমার ছোট বোন (সৎ মায়ের মেয়ে) কে ধর্ষণ করে।

তিনি আরো বলেন, পরদিন বিষয়টি আমার ছোট বোন বিষয়টি আমাকে জানায়। এর আগেও আমার বাবা আমার সাথেও এধরনের কাজ করতে চেয়েছিল। বিষয়টি আমার সৎ মাকে বলার পরও কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় আজকে এ ধরণের ঘটনা আবারও ঘটেছে। আমি আমার বাবার শাস্তি চাই। যাতে সে আর কখনো এ ধরনের কাজ করতে সাহস না পায়।

স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ সাত্তার জানান, রবিবার রাতে এ ঘটনাটি ঘটে। কিন্তু আমরা কেউ জানতাম না। আজকে সকালে প্রতিবেশীর কাছ থেকে ঘটনাটি শুনে আমরা তাকে ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করি। মার খেয়ে সে আমাদের কাছে ঘটনাটি স্বীকার করেছে। পরে আমরা তাকে এলাকার কমিশনারের কাছে নিয়ে গেলে কমিশনার তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

বান্দরবান সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: গোলাম ছরোয়ার বলেন, পিতা কর্তৃক মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনাটি সত্যি। মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে পিতা সাইদুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সত্যতা স্বীকারও করেছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Bootstrap Image Preview