Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৬ বুধবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ১১ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

চাঁদা না পেয়ে চোখ উপড়ে ফেলা সেই ছাত্রলীগ নেতা অস্ত্রসহ আটক

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ মার্চ ২০১৮, ০৯:২৭ PM আপডেট: ১৮ মার্চ ২০১৮, ০৯:৩০ PM

bdmorning Image Preview


বিশেষ প্রতিনিধি।। 

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ৫টি রামদা ও একটি পাইপাগানসহ উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন হোসেনকে (২৮) আটক করেছে রামগঞ্জ থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় ছাত্রলীগের ঐ নেতা তার লোকজন নিয়ে চাঁদাবাজী করতে  গিয়ে চাঁদা না পেয়ে উত্তর হানুবাইশ গ্রামের নূর নবী নামের এক লোকের একটি চোখ উপড়ে ফেলে। শনিবার দুপুরে রামগঞ্জ উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নের মধ্য ভাদুর গ্রামের একটি চা দোকান থেকে তাকে আটক করা হয়। সুজন হানুবাইশ গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে। 

রামগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় সুজন ও তার লোকজন চাঁদার দাবীতে উত্তর হানুবাইশ গ্রামের নূর নবীকে দারালো দেশীয় অস্ত্র দিয়ে একটি চোখ উপড়ে ফেলে। এসময় তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সুজন অস্ত্র এলজি বের করে স্থানীয় লোকদের হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। ঘটনার পরপরই স্থানীয় লোকজন নূর নবীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কিন্তু তার অবস্থা আরো বেশি খারাপ হলে কর্ত্যব্যরত চিকিৎক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠান।

ঘটনার পরপরই আহত নূর-নবীর পরিবার সুজনকে আসামী করে মামলা করে। শনিবার দুপুরে রামগঞ্জ থানার এস আই কাওসারুজ্জামান গোপন সংবাদেরর ভিত্তিতে ভাদুর গ্রামের একটি চা দোকানে অভিযান চালিয়ে মো. সুজনকে ৩ রাউন্ড গুলি, একটি দেশিয় তৈরি এলজিসহ (পাইভগান) আটক করে। তাকে গ্রেফতারের পর তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পুলিশ বাড়ীর বাগান থেকে ৫টি রামদা ও দুইটি লোহার তৈরি অস্ত্র উদ্ধার করে।

রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. তোতা মিয়া জানান, আটককৃত সুজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। শনিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ তাকে আটক করা হয়েছে।

Bootstrap Image Preview