Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২২ শনিবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

কৃষ্ণকাঠি নদী রক্ষায় হাইকোর্টের ৭ নির্দেশ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০১৮, ১০:৫২ PM আপডেট: ১৪ মার্চ ২০১৮, ১০:৫২ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক- 

বরিশালের বানারিপাড়ায় সন্ধ্যা/কৃষ্ণকাঠি নদীর অবৈধ দখলকারীদের তালিকা প্রস্তুত করতে জেলা প্রশাসকসহ সকল বিবাদীদেরকে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আগামী চার মাসের মধ্যে উক্ত নদীর জায়গায় মাটি ভরাট, দখল ও স্থাপনা অপসারণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বুধবার বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ এ রায় দেন।

যারা মাটি ভরাট কাজে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে পরিবেশ আইনের সাত ধারা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রায়ে নদীর জায়গায় ‘কাজলাহার আশ্রয়ন’ প্রকল্প গ্রহণ ও কার্যকর করাকে অবৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী উক্ত প্রকল্পে যে সকল গরীব লোকদের আবাসনের প্রস্তাব ছিল তাদেরকে অন্য সরকারি জমিতে পুনর্বাসন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সন্ধ্যা নদীর প্রকৃত সীমানা সংরক্ষণ এবং জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনকে নদী রক্ষায় মনিটরিং কমিটি করে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বরিশালের সন্ধ্যা নদী ভরাট করে আবাসন প্রকল্প তৈরির সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। তিনি নিজেই রিটের পক্ষে শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ইশরাত জাহান।

Bootstrap Image Preview