Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২০ শনিবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

ছোটখাটো গুন্ডাপান্ডা মোকাবিলায় আমি একাই যথেষ্ট: শামীম ওসমান

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারী ২০১৮, ০৮:৩৩ PM
আপডেট: ১৬ জানুয়ারী ২০১৮, ০৮:৩৩ PM

bdmorning Image Preview


বিডিমর্নিং ডেস্ক-

নারায়ণগঞ্জ শহরে হকারদের ঠেকাতে রাস্তায় নামার পর মেয়র আইভী ও শামীম ওসমানের সমর্থক হকারদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় হকারদের উদ্দেশে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, ‘এ সমস্ত ছোটখাটো গুন্ডাপান্ডা মোকাবিলা করার জন্য আমি একাই যথেষ্ট।

আজ মঙ্গলবার সংঘর্ষেরই সময় ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে হকারদের উদ্দেশে কথা বলেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তিনি বলেন,আমার সব চেনা আছে, জানা আছে। প্রশাসনের ভূমিকা, যেটা নিয়েছেন, সেটা নিয়েছেন। মনে রাখবেন, যদি আমাদের মাঠে নামতে হয় তবে দুই-এক হাজার না, দুই-এক লাখ নামবে।

কেউ কেউ নারায়ণগঞ্জকে অশান্ত করতে চাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, হকাররা গরিব মানুষ। তারা বসতে চেয়েছে। যারা হকারদের ওপর হামলা করেছে, যারা হকারদের মাথার রক্ত ঝরিয়েছে তাদের বিচার আল্লাহ করবে। অনুরোধ করছি, সবাই পিছে যাও। নারায়ণগঞ্জকে অশান্ত করতে দেওয়া হবে না। আপনারা সবাই ধৈর্য ধরেন। নারায়ণগঞ্জকে অশান্ত করার সুযোগ কাউকে দিবেন না। আমি দেখেছি আজ অনেক বিএনপির ক্যাডার মাঠে আছে। দেখেছি বিএনপির মার্ডার কেসের আসামি, তাদের ভাইয়েরা সব নারায়ণগঞ্জের মেয়রের মিছিলে প্রবেশ করে নারায়ণগঞ্জকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। মেয়র বোকামি করতে পারে, আমি করব না।’

শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘এটা কোনো রাজনৈতিক সংগ্রাম না, হৈচৈ না। সিটি করপোরেশনের হকাররা বসবে কি বসবে না এটা জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, সিটি করপোরেশন সবাই মিলে ঠিক করবে। বিকল্প ব্যবস্থা না দেওয়া পর্যন্ত হকার আছে এবং হকার বসবে। আপনারা আমাকে যদি সাহায্য করতে চান, ওদের দেখার জন্য আমি একলাই পারি, আপনাদের লাগবে না। দয়া করে পিছে যান, আমি দেখি কার কতটুকু সাহস আছে।’

শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘আপনাদের অনুরোধ করছি আপনারা ফিরে শহীদ মিনারের সামনে বসেন। হকারদের বলব আপনারা যান, কাল প্রতিবাদ সভা করবেন। যার যার শান্তিপূর্ণ অবস্থানে ফিরে যান। শহীদ মিনারের সামনে থাকেন। আমি রাস্তায় আছি। আমি দেখতে চাই কার কতটুকু ক্ষমতা হয়েছে।’

মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন এলাকায় হকার বসা ও উচ্ছেদ নিয়ে হকার ও শামীম ওসমানের সমর্থকদের সঙ্গে মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থকদের ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া হয়। ওই ঘটনায় আহত হন স্বয়ং মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মেয়রের ওপর হামলা হয়। পরে বঙ্গবন্ধু সড়কের ২ নম্বর রেলগেট থেকে চাষাঢ়া পর্যন্ত সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এ হামলায় সাংবাদিকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।

Bootstrap Image Preview