Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৩ মঙ্গলবার, অক্টোবার ২০১৮ | ৮ কার্তিক ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

মোহাম্মদপুরে চার প্যাকেট ককটেলসদৃশ বস্তুসহ ২৪ বোতল ফেনসিডিল জব্দ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৮:০২ PM
আপডেট: ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৯:২১ PM

bdmorning Image Preview


ইসতিয়াক ইসতি-

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের আজিজ মহল্লার ব্লক এফ'এর একটি বাসা থেকে ককটেলসদৃশ চার প্যাকেট ও ২৪ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করেছে পুলিশ।

রবিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে এসব জব্দ করে পুলিশ। তবে সেগুলো কোনও বিস্ফোরক কিনা, তা খতিয়ে দেখতে ঘটনাস্থলে থেকে জিনিসগুলি উদ্ধার করে নিয়ে গেছে ডিএমপির বোম্ব ডিস্পোজাল টিম। বাড়িটির মালিক সাবেক সেনা কমান্ডার(গেরিলা কমান্ডার) মরহুম সৈয়দ শফিকুল ইসলাম।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েকদিন আগে আগে ঝাল মুড়ি বিক্রেতা পরিচয় দিয়ে এই বাড়িতে ভাড়া উঠেন মনির নামের অভিযুক্ত ঐ ব্যক্তি। কিন্তু ভাড়া নেওয়ার সময় বাড়িওয়ালাকে পরিচয় নিশ্চিত করার সকল কাগজপত্র প্রদান করেননি।

বর্তমানে এই বাড়িটি দেখাশুনা করেন শফিকুল ইসলামের ছেলের বউ হাসিফা বেগম। তিনি বলেন, মুড়ি ব্যবসায়ী পরিচয়ে চলতি মাসের ১২ তারিখ একটি রুম ভাড়া নেন মনির। এরপর ১৪ তারিখ রুমের মধ্যে তিন বস্তা মুড়ি রেখে যান তিনি। ১৮ তারিখ তার সকল তথ্যাদি দেওয়ার কথা ছিল।

জানা যায়, রবিবার বিকালের দিকে মোহাম্মদপুরের আজিজ মহল্লার এফ-ব্লকের জয়েন্ট কোয়র্টারের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে ককটেলসদৃশ্য এই বস্তু দেখেন স্থানীয়রা। এরপর তারা পুলিশকে খবর দিলে ছুটে যায় স্থানীয় থানা পুলিশ। এরপর মোহাম্মদপুর থানার ডিউটি অফিসার সজীবের নেতৃত্বে ঐ বাড়িতে অভিযান শুরু করলে মুড়ির বস্তার ভিতর থেকে ককটেলসদৃশ্য বস্তু ও ফেনসিডিল জব্দ করা হয়।

এদিকে এ ঘটনার সময় মনিরের নাম্বার থেকে বাড়িওয়ালার নাম্বারে একটি মিস কল এসেছিল। কিন্তু পরবর্তীতে ঐ নাম্বারে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে বাড়িটির তত্ত্বাবধায়নকারী হাসিফা বেগম বলছেন, জমি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জামাল উদ্দিন বলেন, ‘ককটেলের মত দেখতে ১১/১২টি বস্তু একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে দেখা গেছে। সেগুলো কোনও বিস্ফোরক কিনা তা এখনও নিশ্চিত না। তবে আমরা কাজ করছি।

Bootstrap Image Preview