Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ শুক্রবার, সেপ্টেম্বার ২০২১ | ৯ আশ্বিন ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিশিষ্টজনদের সঙ্গে রাত বিরাতে ডজনখানেক ক্লাবে আসা-যাওয়া

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:২০ AM আপডেট: ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:২০ AM

bdmorning Image Preview


আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটি থেকে সদ্য পদ হারানো হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাতে গুলশান-২ এর ৩৬ নম্বর রোডের ৫ নম্বর বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়। র‍্যাব জানায়, মাদক ও হরিণের চামড়া রাখায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

একটি গোয়েন্দা সংস্থার দায়িত্বশীল সূত্র থেকে জানা গেছে, হেলেনা জাহাঙ্গীরের প্রায় ডজনখানেক ক্লাবে আসা যাওয়া ছিল। তিনি সবগুলো ক্লাবের সদস্য না হয়েও ক্লাবের বিশিষ্ট সদস্যদের সঙ্গে পরিচয়ের সূত্রে সেখানে যেতেন। সেখানে তিনি অবৈধভাবে মদ পান করতেন।

ক্লাবগুলো হলো, কুমিল্লা ক্লাব, গুলশান অল কমিউনিটি ক্লাব, বিজিএমইএ অ্যাপারেল ক্লাব, বোট ক্লাব, গুলশান লেডিস ক্লাব, উত্তরা লেডিস ক্লাব, গুলশান ক্লাব, গুলশান সোসাইটি, বনানী সোসাইটি, গুলশান হেলথ ক্লাব, গুলশান নর্থ ক্লাব ও বারিধারা ক্লাব।

সম্প্রতি ‌‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামে একটি সংগঠনের পোস্টার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পোস্টারে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি হেলেনা জাহাঙ্গীর আর সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মনিরের নাম উল্লেখ করা হয়। এ সংগঠনে সদস্যপদের দেওয়ার কথা বলে বেশ কয়েকজনের কাছে তিনি টাকা দাবি করেন। আর এ কারণেই আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, জাতীয় পার্টির প্রয়াত এইচ এম এরশাদ, ওবায়দুল কাদেরসহ আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে তোলা ছবি দিয়ে ফেসবুকে হেলেনা নিজেকে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে চেয়েছিলেন। এছাড়াও তিনি রাজনীতির নামে বিভিন্ন সুবিধা নিয়েছেন।

সম্প্রতি ফেসবুক লাইভে এসে হেলেনা বলেন, ‘আমি যে কারো সঙ্গেই ছবি তুলতে পারি। এর মানে এই না যে, আমি বিএনপি বা জাতীয় পার্টির রাজনীতি করি। আমি আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার রাজনীতি করি।’

ফেসবুকে ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য এটিএন বাংলার সত্ত্বাধিকারী মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে গান করার প্রস্তাব পেয়েছেন বলে গুজব ছড়িয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন হেলেনা। এ সংক্রান্ত একটি ফোন রেকর্ড ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।
 
হেলেনার স্বামী জাহাঙ্গীর আলম একজন ব্যবসায়ী। ১৯৯০ সালে তারা বিয়ে করেন। দুজনে মিলে জয়যাত্রা গ্রুপের নামে প্রিন্টিং প্রতিষ্ঠান, এমব্রয়ডারি, প্যাকেজিং, স্টিকার এবং ওভেন গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। হেলেনা পোশাক শিল্প মালিকদের দুই সংগঠন বিজিএমইএ ও বিকেএমইএর সদস্য। এছাড়াও তিনি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) সদস্য ও নির্বাচিত পরিচালক।

জয়যাত্রা টিভি নামে একটি আইপি টিভির প্রতিষ্ঠাতা হেলেনা জাহাঙ্গীর। বেশ কয়েকজন সাংবাদিক অভিযোগ করেছেন, এ আইপি টিভিতে কাজ করতে হলে টাকা দিয়ে আইডি কার্ড নিতে হয়। এতে সংবাদ প্রচার করতে হলেও টাকা গুনতে হয় সাংবাদিকদের। তবে এ অভিযোগের বিষয়ে হেলেনা কখনও কথা বলেননি।  

Bootstrap Image Preview