Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ শনিবার, মে ২০১৯ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

মেসি কারিশমায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে বার্সা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০১৯, ০৯:৫৭ AM আপডেট: ১৪ মার্চ ২০১৯, ০৪:৩৩ PM

bdmorning Image Preview


উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লিগে প্রতিপক্ষের মাঠে গোলশূন্য ড্রতে শেষ করেছিল বার্সেলোনা।ফিরতি লিগে বুধবার অলিম্পিক লিঁওকে ৫-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে গেল বার্সেলোনা। রেকর্ড ১২বার টানা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে পৌঁছে গেল তারা।

বার্সার হয়ে জোড়া গোল করেছেন অধিনায়ক মেসি। একটি করে গোল করেছেন কুটিনহো, পিকে ও দেম্বেলে৷ লিয়ঁর হয়ে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে একটি গোল শোধ করেন টুসার্ট৷

বুধবার ম্যাচের ১৭ মিনিটেই লিও মেসির গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা।  মেসির বাড়ানো বল ধরে এগিয়ে যাওয়া লুই সুয়ারেজকে বক্সের মধ্যে ফাউল করলে পেনাল্টির নির্দেশ দেন রেফারি। স্পটকিক থেকে পানেনকা শটে গোল করেন এলএমটেন। কিছুক্ষণ পরে বল দখলের লড়াইয়ে কুটিনহোর পায়ে লিঁও-র গোলরক্ষক লোপেজের মাথায় আঘাত লাগে। মাঠে প্রাথমিক চিকিৎসার পর খেলা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেও অসুস্থ বোধ করায় ৩৪ মিনিটে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। এদিকে ৩১ মিনিটে কুটিনহোর গোলে ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় বার্সা। প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় আরনেস্তে ভালভের্দের দল।

হাফটাইমের পরে গোল ব্যবধান কমান লিওঁর টুসার্ট। ম্যাচের স্কোরলাইন দাঁড়ায় ২-১। ৭৮ মিনিটে সার্জিও বুটসকেটসের পাস থেকে গোল করে ব্যবধান ৩-১ করেন মেসি। ৮১ মিনিটে পিকেকে গোলের পাস বাড়ান এলএম টেন। এদিন এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত গোলের নিরিখে পিকে ছুঁয়ে ফেলেন নিজের অতীতের রেকর্ড। ২০১৪-১৫ মৌসুমে মোট ৭টি গোল করেছিলেন তিনি। এবার লা লিগায় ৪টি, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দু’টি ও সুপার কাপে একটি গোল আসা পিকের পা থেকে।

ম্যাচের ৮৬ মিনিটে মেসি গোলের বল বাড়িয়ে দেন ডেম্বেলেকে। লিওঁর জালে বল জড়িয়ে ডেম্বেলে বার্সার হয়ে পাঁচ গোলের বৃত্ত পূর্ণ করেন। ম্যাচের চূড়ান্ত স্কোরলাইন দাঁড়ায় ৫-১। দু’টি গোল করে এবং দু’টি অ্যাসিস্ট করে ম্যাচের সেরা হন মেসি। এই নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে টানা ৩০ম্যাচে অপরাজিত থাকল বার্সেলোনা।

Bootstrap Image Preview