Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৯ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ | ঢাকা, ২৫ °সে

নায়িকাদের চুম্বনের আগে যা করেন ইমরান হাশমি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ০৭:১২ PM আপডেট: ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ০৭:১২ PM

bdmorning Image Preview


বলিউডের রোমান্টিক অভিনেতাদের একজন ইমরান হাশমি। 'আশিক বানায়া আপনে' সিনেমায় তনুশ্রী দত্তের সঙ্গে তার রসায়ন বেশ নজর কাড়ে সিনে প্রেমীদের। এরপর অসংখ্য সিনেমায় অভিনয় করেছেন এ অভিনেতা। এমনকি তার কপালে জুটেছে বলিউডের 'সিরিয়াল কিসারের' তকমাও।

এদিকে বলিউড উত্তাল ‘#মি টু’ নিয়ে। নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে তনুশ্রী দত্তের অভিযোগ নিয়ে বলিউড পাড়ায় এখন শোরগোল চলছে। এরপর অলোক নাথ, সাজিদ খান, অনু মালিক, বিকাশ বহেল, অভিজিৎ ভট্টাচার্য ও অমিতাভ বচ্চনের বিরুদ্ধেও উঠেছে ‘#মি টু’ এর অভিযোগ। একের পর এমন এক জনপ্রিয় নাম উঠে আসছে কাজের বিনিময়ে নারীদের ভোগ করতে চাওয়ার অভিযোগ।

উত্তাল এই সময়ে ‘#মি টু’ ব্যাপারে এবার মুখ খুললেন বলিউডের ‘সিরিয়াল কিসার’ নামে পরিচিত নায়ক ইমরান হাশমি। ইমরান ‘#মি টু’ আন্দোলনকে সমর্থন করে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

‘আশিক বানায়া’ ছবিতে কাজ করার মাধ্যমে অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তর সঙ্গে ইমরান হাশমির পরিচয় হয়।

অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তের সঙ্গে যা ঘটেছে তা নিয়ে ইমরান হাশমি বলেন, তাঁর প্রযোজনা সংস্থা কোনোভাবেই এ ধরনের ঘটনাকে সমর্থন করে না।

এদিকে চুম্বনের দৃশ্য নিয়ে ইমরান বলেন, ‘কোনো চুম্বন অথবা অন্তরঙ্গ নাচের দৃশ্য শুট করার আগে আমরা একে অপরের (নায়ক-নায়িকা) সঙ্গে অনেকটা সময় কাটাই। আর আমরা প্রচুর কথা বলি। যখন দুজনের মনে হয় এই দৃশ্যের জন্য আমরা মানসিকভাবে পুরোপুরি প্রস্তুত, তখন সেই দৃশ্যটা করি। ছবির নায়িকার যদি কোনো বিষয়ে অস্বস্তি বা আপত্তি থাকে, তাহলে আমরা সেই দৃশ্য শুট করি না। এ ধরনের হেনস্তার ঘটনার প্রতি আইনি ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। আর একটি কমিটিও গঠন করা উচিত।’

অন্যদিকে বেশ কিছুদিন আগে ডার্টি পিকচার’, ‘ঘনচক্কর’ এবং ‘হামারি আধুরি কাহানি’র মতো সিনেমায় ‘সিরিয়াল কিসার’ ইমরান হাশমির বিপরীতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা। আর হাশমির সিনেমা মানেই সেখানে থাকবে চুমুর দৃশ্য। তাই অবধারিতভাবেই তাকে বারবার চুমু খেতে হয়েছে বিদ্যাকে।

কিন্তু চুমুর দৃশ্যে অভিনয়ের আগে কী করতেন হাশমি?

বিদ্যা বলেন, ‘ইমরান হাশমি প্রতিবারই চুমুর দৃশ্যের আগে ফালতু কথা বলতে শুরু করতো। ‘ঘনচক্কর’-এর সময় সে আমাকে বলতে শুরু করলো, সিদ্ধার্থ (বিদ্যা বালানের স্বামী) দেখলে কী মনে করবে? আমি আমার পারিশ্রমিক পাবো তো?’

তিনি আরও বলেন, ‘ইমরান প্রতিবারই চুমুর দৃশ্যে এমন কিছু বলে আমাদের মধ্যকার জড়তা কাটিয়ে নিতো।’

 

Bootstrap Image Preview