Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২০২৪ | ১২ বৈশাখ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

ট্রেনে কাটা পড়ে ছেলের মৃত্যু, কেন লাশ নিতে নারাজ বাবা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারী ২০২৩, ০৬:৩২ PM
আপডেট: ১২ জানুয়ারী ২০২৩, ০৬:৩২ PM

bdmorning Image Preview


রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেছে সাঈদ আবদুল্লাহ (২২) নামে এক শিক্ষার্থী। বুধবার বেলা ১১টার দিকে তেজগাঁওয়ে রেললাইন পার হওয়ার সময় দুর্ঘটনায় শিকার হন তিনি।

হিন্দু থেকে ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম গ্রহণ করার কারণে কৈশোর বয়সে সাঈদ আবদুল্লাহকে ঘর ছাড়তে হয়েছিল। তিনি পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েও অনেক কষ্ট করে লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার অপেক্ষা ছিলেন তিনি।

দুর্ঘটনার বিষয়ে রেলওয়ে থানা (ঢাকা-জিআরপি) জানায়, সাঈদ মুঠোফোনে কথা বলতে বলতে রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় কমলাপুর থেকে ছেড়ে আসা একটি ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান সাঈদ। জিআরপি থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে পাঠিয়েছে।

মৃত্যুর খবর পেয়ে ঢাকা মেডিকেলের মর্গে আসা সাঈদ আবদুল্লাহর বন্ধু ও সহপাঠীরা জানান, তার বাড়ি কক্সবাজারের চকরিয়ার হোতালিয়া পাড়ায়। তিনি দশম শ্রেণিতে পড়ার সময় ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। বিষয়টি জানতে পেরে তার পরিবার তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এর পর থেকে চকরিয়ার এক ব্যক্তি তাকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছিলেন। সাঈদ এসএসসি পাস করে ঢাকায় এসে তেজগাঁও সরকারি বিজ্ঞান কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হন এবং সেখানকার হোস্টেলে ওঠেন।

পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পারলেও সাঈদ তার মায়ের সঙ্গে গোপনে দেখা করতেন বলে বন্ধুরা জানিয়েছেন।

এদিকে সাঈদের লাশ গ্রহণ নিয়ে দেখা দিয়েছে জটিলতা। তার বন্ধু আবদুল্লাহ বলেন, সাঈদের বাবা ছেলের লাশ গ্রহণ করবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। তবে সাঈদের মা ছেলের লাশ দেখতে ঢাকায় আসার কথা বলেছিলেন।

এলাকার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেছেন, সাঈদের লাশ পাঠালে তিনি দাফন করবেন।

ঘটনার তদন্তকারী বিমানবন্দর রেলস্টেশন পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বে থাকা সহকারী পরিদর্শক কামরুল হাসান বলেছেন, কেউ লাশ গ্রহণ নসা করলে মর্গে রাখা হবে। পরে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী দাফনের ব্যবস্থা করা হবে।

Bootstrap Image Preview