Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২০ বৃহস্পতিবার, জুন ২০২৪ | ৬ আষাঢ় ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

আর্জেন্টিনার শীর্ষ ধনীদের মধ্যে মেসি নেই

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৪৪ PM
আপডেট: ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৩:৪৪ PM

bdmorning Image Preview
ছবি সংগৃহীত


আর্জেন্টিনার নাম শুনলেই প্রথমেই আসে ফুটবলের কথা। দিয়েগো ম্যারাডোনা, লিওনেল মেসির মতো খেলোয়াড়ের জন্ম হয়েছে দেশটিতে। নিজ যোগ্যতায় আজ বিশ্বের অন্যতম সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকপ্রাপ্ত ক্রীড়াবিদ হয়ে উঠেছেন মেসি। প্রতিদিন আয় করছেন কোটি টাকা। তবু আর্জেন্টিনার শীর্ষ ধনীদের ধারেকাছেও নেই ফুটবলের এই ‘বিস্ময়বালক’।

মার্কিন সাময়িকী ফোর্বসের তথ্যমতে, ফরাসি ক্লাব পিএসজিতে বর্তমানে মেসির বর্তমান বাৎসরিক বেতন সাড়ে তিন কোটি মার্কিন ডলার। অর্থাৎ,তার সাপ্তাহিক আয় ৭ লাখ ৩৮ হাজার ডলার, দৈনিক আয় ১ লাখ ৫ হাজার ডলার এবং প্রতি ঘণ্টায় আয় ৮ হাজার ৭৯০ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় হিসাব করলে মেসির দৈনিক আয় প্রায় ১ কোটি ৭ লাখ টাকা এবং ঘণ্টায় আয় ৮ লাখ ৯৪ হাজার টাকার মতো।

এটি তো গেলো মাঠের আয়। মাঠের বাইরে থেকেও মেসির রোজগার চোখ কপালে তোলার মতো। ইনসাইডার বলছে,বিজ্ঞাপন,ব্র্যান্ড চুক্তি, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে প্রতি বছর বিপুল আয় হয় আর্জেন্টাইন তারকার। গত এক বছরে মাঠের বাইরে থেকে সাড়ে পাঁচ কোটি ডলার আয় করেছেন লিওনেল মেসি, যা টেনিস তারকা রজার ফেদেরার কিংবা এনবিএ সুপারস্টার লেব্রন জেমসের চেয়েও বেশি।বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডগুলোর ভেতর অ্যাডিডাস, বাডউইজার, পেপসিকো, সোসিওসের সঙ্গে মোটা অংকের চুক্তি রয়েছে ৩৫ বছর বয়সী এ তারকার। গত জুনে বহুজাতিক কোম্পানি হার্ড রক ইন্টারন্যাশনালের প্রথম ক্রীড়াবিদ ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়েছেন তিনি।

ফোর্বসের হিসাবে, মেসি সারাজীবনে মোটামুটি ১১৫ কোটি ডলার আয় করেছেন। ধনীদের সম্পত্তির হিসাব সংক্রান্ত ওয়েবসাইট ওয়েলদি গরিলা বলছে, আর্জেন্টাইন এ তারকার বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ৬০ কোটি ডলার।তবে এত অর্থবিত্তের মালিক হয়েও আর্জেন্টিনার শীর্ষ ধনীদের কাছাকাছি যেতে পারেননি লিওনেল মেসি। ফোর্বসের বিলিয়নিয়ার ইনডেক্স অনুসারে, এই মুহূর্তে আর্জেন্টিনায় বিলিয়নিয়ার বা শত কোটি ডলারের মালিক রয়েছেন মোট ছয় জন। তাদের মধ্যে সবচেয়ে কম সম্পদ যার, তিনিও ১৩০ কোটি ডলারের মালিক।আর্জেন্টিনার শীর্ষ ধনী কারা এই মুহূর্তে আর্জেন্টিনার এক নম্বর ধনীর নাম মার্কোস গ্যালপেরিন। ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম মার্কাডোলিব্রে’র প্রধান নির্বাহী তিনি। মার্কোসের বর্তমান সম্পত্তির মূল্য ৪১০ কোটি ডলার। আর্জেন্টিনায় শীর্ষ এবং বিশ্বের মধ্যে ৬৫৬তম ধনী ব্যক্তি তিনি।

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন গ্রেগোরিও পেরেজ কমপ্যাঙ্ক ও তার পরিবার। তাদের এই অর্থবিত্ত এসেছে ‍মূলত তেল-গ্যাসের ব্যবসা থেকে। গ্রেগোরিও পেরেজ জ্বালানি সংস্থা পেরেজ কম্প্যাঙ্কের প্রতিষ্ঠাতা। ২০০২ সালে সংস্থাটিকে ব্রাজিলের এনার্জি জায়ান্ট পেট্রোবাসের কাছে ১০০ কোটি ডলারে বিক্রি করে দেন তিনি। পেরেজ পরিবারের বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ২৮০ কোটি ডলার। আর্জেন্টিনার তৃতীয় শীর্ষ ধনী আলবার্তো রোমার্সের সম্পদের পরিমাণ ২৩০ কোটি ডলার। তিনি আর্জেন্টিনার বৃহত্তম ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ল্যাবোরেটোরিওস রোমার্সের অধিকাংশ শেয়ারের মালিক। আর্জেন্টিনার বাইরে ব্রাজিল, উরুগুয়ে, মেক্সিকোতেও ব্যবসায় রয়েছে কোম্পানিটির।

দেশটির চতুর্থ শীর্ষ ধনীর নাম আলেজান্দ্রো বুলগেরোনি। তিনিও তেল-গ্যাস ব্যবসায়ী। ১৯৮৫ সালে বাবার প্রতিষ্ঠিত ব্রিডাস করপোরেশনের দায়িত্ব নেন আলেজান্দ্রো ও তার ভাই কার্লোস (২০১৬ সালে মারা গেছেন)। ২০১১ সালে চীনা তেল কোম্পানি সিএনওওসি’র কাছে ব্রিডাসের ৫০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করে দেন তারা। আলেজান্দ্রোর বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ১৯০ কোটি ডলার।

আর্জেন্টিনার পঞ্চম শীর্ষ ধনী এডুয়ার্দো ইউরনেকিয়ান এক আর্মেনীয় অভিবাসীর সন্তান। তার করপোরেসিয়ান আমেরিকা বিশ্বজুড়ে ৫০টির বেশি বিমানবন্দর পরিচালনা করছে। এডুয়ার্দোর সম্পদের পরিমাণ ১৯০ কোটি ডলার। এরপর রয়েছেন এডুয়ার্দো কস্টান্টিনি। আর্জেন্টিনার ষষ্ঠ এই ধনীর সম্পদের পরিমাণ ১৩০ কোটি ডলার। ১৯৯১ সালে রিয়েল এস্টেট কোম্পানি কনসাল্টিও এসএ প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। আর্জেন্টিনা ও যুক্তরাষ্ট্রে বিশাল ব্যবসা রয়েছে কোম্পানিটির। এর প্রায় ৭০ শতাংশ শেয়ার দখলে রেখেছেন কস্টান্টিনি।

Bootstrap Image Preview