Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ রবিবার, মে ২০২৪ | ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

উত্তরার বারে অভিযানে ডিএনসি কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করা হয়নি : ডিবি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০২২, ০২:২০ PM
আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০২২, ০২:২০ PM

bdmorning Image Preview


উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের একটি ভবনে থাকা বারে অভিযান পরিচালনার সময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের (ডিএনসি) কোনো কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করা হয়নি বলে জানিয়েছেন ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

তিনি বলেছেন, পুলিশ বা অন্যান্য সংস্থা মাদকের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে। আইনি প্রক্রিয়া মেনেই অভিযান পরিচালনা করা হয়। ঢাকাসহ দেশের যেকোনো জায়গায় মদ বিক্রিসহ অসামাজিক কার্যকলাপ করলে পুলিশ কারণ উল্লেখ করে অভিযান পরিচালনা করতে পারবে। এই কাজটি আমরা সব সময় করে আসছি এবং ভবিষ্যতেও করব। আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে প্রজন্মকে রক্ষা করা।

সোমবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে হারুন অর রশীদ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা আমাদেরই সহকর্মী। তারা তাদের কাজটি করবে, আমরা আমাদের কাজ করব। উত্তরার অভিযানে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কোনো কর্মকর্তাকে আটকে রেখে লাঞ্ছিত করার কোনো অভিযোগ আমরা পাইনি।

ডিবি প্রধান বলেন, আমাদের টিম রাত ৯টা থেকে ২টা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করেছে। যেখানে যেখানে মদ পাওয়া গেছে, সেখানে তারা ব্যবস্থা নিয়েছে। তবে এই অভিযানে ডিএনসির কোনো কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করার ঘটনা ঘটেনি।

উত্তরার অভিযানের বিষয়ে ডিএনসিকে ডিবি জানিয়েছে কিনা বা তাদের সহযোগিতা চেয়েছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা যখন প্রয়োজন মনে করি, তখন অনেককে জানাই। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ২৩ ধারা স্পষ্ট বলা আছে, কারা অভিযান পরিচালনা করবে আর কারা করতে পারবে না। আর যেখানে অসামাজিক কার্যকলাপ ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করা হবে সেখানে পুলিশ অভিযান চালাতে পারবে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে হারুন বলেন, গতকাল গুলশান সোসাইটি অভিযোগ করেছে ইউনাইটেড হাসপাতালের সামনে সারা রাত মদ বিক্রি হয়। উত্তরার সংসদ সদস্য অভিযোগ করেছেন ডিজে পার্টির নামে সেখানে সারারাত নাচানাচি হয়। অভিযোগের ভিত্তিতেই আমরা অভিযান পরিচালনা করছি। প্রধানমন্ত্রীও বলেছেন- মাদকের বিরুদ্ধে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা তথ্য পেলে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করব। অন্য কোনো সংস্থা যদি কাজটি নাও করে, আমরা করব।

রাজধানীর অনেক বারে ডিজে পার্টি হয়। কিন্তু সেগুলোর বৈধতা নেই। এগুলোর তালিকা ডিবির কাছে আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, যেসব জায়গায় অবৈধ ডিজে পার্টি ও মদ বিক্রি হয়, তথ্য পেলে আমরা অবশ্যই সেখানে অভিযান পরিচালনা করব।

Bootstrap Image Preview