Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৮ মঙ্গলবার, মে ২০২৪ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

একটি ডিম পাঁচটি সিগারেটের সমান ক্ষতিকারক

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২২, ১২:৩২ PM
আপডেট: ২৩ মার্চ ২০২২, ১২:৩২ PM

bdmorning Image Preview


সম্প্রতি এক ভেগান নারীর এই মন্তব্যে হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে বিভিন্ন সোশ্যাল সাইটে। কিছু দিন আগেই ওই নারী টুইটারে এই আশ্চর্যজনক দাবি করেছিলেন। ‘একটি ডিম= পাঁচটি সিগারেটের সমান!?’

@PlantBasedBarb এই টুইটার হ্যান্ডেল থেকে ওই নারী জানান, ‘একটি মাঝারি আকারের ডিমে ১৮৬ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল থাকে যা প্রস্তাবিত খাবারের ৬২ শতাংশ। তাই ডিম খাওয়া আপনার স্বাস্থ্যের জন্য ধূমপানের চেয়েও খারাপ!’

@PlantBasedBarb-এর টুইটটি অনেকটা ২০১৭ সালে নির্দেশিত ‘হোয়াট দ্য হেলথ’ ছবির মতো শোনাচ্ছে। এই বিতর্কিত নেটফ্লিক্স ডকুমেন্টারিটি ডক কনসপিরেসির পিছনে থাকা ব্যক্তিদের দ্বারা তৈরি করা হয়েছিল। ওই ছবিটি মাংস এবং দুধের সেবনকে ক্যান্সারের সঙ্গে যুক্ত করার পর প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে। ওই ছবিতেও এই ভেগান নারীর মতো যুক্তি দেয়া হয়েছিল যে, ডিমের কোলেস্টেরলের মাত্রা ধমনীতে প্লাক তৈরি করতে সক্ষম যা পাঁচটি সিগারেট ধূমপানের মতো ক্ষতিকর।

বার্ব তার অনুগামীদের কাছে টফুকে ডিমের বিকল্প হিসাবে উল্লেখ করেছেন। কিন্তু টফু বিকল্পের সম্পর্কে তার পরামর্শের পরেও কেউই তার কথায় বিশেষ কান দেয়নি। অনেকেই বার্বের টুইটটিকে হাস্যকর বলে মনে করেছেন।

টফু হচ্ছে জনপ্রিয় একটি এশিয়ান খাবার, যা শিম দই হিসাবেও পরিচিত। অনেক সুস্থ ভোক্তারা টফুকে মাংসের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করে থাকে, কারণ এটি প্রোটিনে উচ্চতর কিন্তু চর্বি এবং সোডিয়াম কম। টফু নরম বা দৃঢ় হতে পারে।

এক সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী বার্বের যোগ্যতা নিয়েই প্রশ্ন তুলে বলেছেন, আমি আপনার প্রোফাইলে ডায়েটিশিয়ান বা ডাক্তার এই রকম কোনো ডিগ্রি দেখতে পাচ্ছি না।

প্রকৃতপক্ষে, দ্য স্মল চেঞ্জ ডায়েটের লেখক আরডি কেরি গ্যান্সের মতে, নারীদের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে একজন ডায়েটিশিয়ান সর্বদাই সপ্তাহে ডিমের একটি কার্টন ধারণ করার কথা বলেন। অর্থাৎ গড় ব্যক্তির জন্য, দিনে দু’টি ডিম খাওয়া সম্পূর্ণরূপে স্বাস্থ্যকর। ডিমে যে পরিমাণ কোলেস্টেরলের কথা বার্ব বলেছে তা সঠিক, তবে ডিম রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়াতে দায়ী নয়।

ডায়েটিশিয়ান সোনিয়া অ্যাঞ্জেলোনের মতে, আপনি যদি ডিমের কোলেস্টরল নিয়ে উদ্বিগ্ন হন, আপনার ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে নির্দিষ্ট পরিমাণ ডিমই ডায়েটের তালিকায় রাখতে পারেন। স্বাভাবিকভাবে একজন সুস্থ ব্যক্তির প্রসঙ্গে যদি বলা যায়, তাহলে আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ডিম আদৌ শত্রু নয়।

Bootstrap Image Preview