Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৭ বুধবার, এপ্রিল ২০২৪ | ৩ বৈশাখ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

২ মাদরাসা শিক্ষার্থীকে ডেকে নিয়ে দুই কিশোরের ধর্ষণ!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৪৮ AM
আপডেট: ১০ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৪৮ AM

bdmorning Image Preview


চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় সপ্তম শ্রেণির দুই মাদরাসা শিক্ষার্থীকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে দুই কিশোরের (১৭) বিরুদ্ধে। যশোরের মণিরামপুরের শ্যামনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অফিসকক্ষে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফরিদপুরের সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়ন থেকে কিশোরীকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঝালকাঠির রাজাপুরে এক শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে।

আলমডাঙ্গায় গত রবিবার রাতের ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার সকালে অভিযুক্ত দুই কিশোরের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দিয়েছে ভুক্তভোগী দুই কিশোরী। কিশোর দুজনের বাড়ি উপজেলার ওসমানপুর প্রামে। অভিযোগ মতে, রবিবার রাত ৮টার দিকে এক কিশোর তার ‘প্রেমিকা’কে (ভুক্তভোগী) মোবাইলে ফোন করে বাড়ির বাইরে আসতে বলে। সে ও তার বান্ধবি (আরেক ভুক্তভোগী) বাইরে বের হলে তাদের মোটরসাইকেলে তুলে নেয় কিশোরটি। পরে তাদের ওসমানপুর-হারদী মাঠের কানাপুকুর নামক স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থান করছিল কিশোরটির বন্ধু তথা আরেক কিশোরীর ‘প্রেমিক’ (১৭)। সেখানে দুই কিশোর তাদের ধর্ষণ করে। পরে রাত ২টার দিকে তাদের বাড়ি পৌঁছে দেয় মোটরসাইকেলচালক কিশোর।

যশোরের মণিরামপুরে সোমবার রাতে ধর্ষণে অভিযুক্ত আতাউর রহমান (৩১) শ্যামনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী। তিনি শ্যামনগর গ্রামের আলী মুনসুরের ছেলে। এ ঘটনায় সোমবার রাতেই আতাউরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে ভুক্তভোগী কিশোরী। 

জানা গেছে, আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হওয়ায় তাঁর চাকরির চুক্তি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। এদিকে আতাউরের বহিষ্কারের দাবিতে গতকাল সকালে স্কুল ঘেরাও করে এলাকাবাসী।

মণিরামপুর থানার উপপরিদর্শক যোগেশ চন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘ঘটনাটি আশপাশের লোকজন দেখে ফেলে আতাউরকে ধরে মারধর করে। খবর পেয়ে আমরা আতাউর ও বাদীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি।’

ফরিদপুরের ডিক্রিরচরে গত রবিবারের ঘটনায় সোমবার রাতে গ্রেপ্তার তিনজন হলেন আইজুদ্দিন মাতুব্বরের ডাঙ্গি গ্রামের শুকুর শেখের ছেলে আকাশ শেখ (২৩), একই গ্রামের সালাম শেখের ছেলে রনি শেখ (১৮) এবং পূর্ব ডাঙ্গী গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক শেখের ছেলে শিপন শেখ। গতকাল তাঁদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার এক সংবাদ সম্মেলনে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. জামাল পাশা এ তথ্য জানান।

রাজাপুরে গত রবিবার সকালে অভিযুক্ত মুক্তিযোদ্ধা মো. ইলিয়াস হোসেন ফরাজীর (৬৫) বাড়ি উপজেলার চাড়াখালী গ্রামে। ভুক্তভোগী শিশুটির (১১) মা গতকাল রাজাপুর থানায় মামলাটি করেন।

Bootstrap Image Preview