Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২০২৪ | ১২ বৈশাখ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

খাদ্দ্যে অতিরিক্ত তেল বাড়ায় স্বাস্থ্য ঝুঁকি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৩২ AM
আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৩২ AM

bdmorning Image Preview


খাবারকে সুস্বাদু করার পাশাপাশি দৈনিক পুষ্টি চাহিদাও পূরণ করে ভোজ্যতেল। তবে খাবারে তেলের ব্যবহারের ব্যাপারে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ দৈনিক পাঁচ থেকে ছয় চামচ পরিমাণ ভোজ্যতেল গ্রহণ করতে পারেন। শিশুদের বেলায় এর পরিমাণ আর একটু বেশি হতে পারে।

তবে যারা দীর্ঘদিন হৃদরোগ, উচ্চরক্তচাপ, রক্তে উচ্চমাত্রার খারাপ চর্বি, আলসার ইত্যাদি সমস্যায় ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রে পরিমাণটা কমিয়ে দেওয়াই ভালো।

এছাড়া খাবার রান্নার ক্ষেত্রে ঘি, ডালডা কিংবা মাখন ব্যবহার না করে সয়াবিন বা অলিভ অয়েল ব্যবহার করাই ভালো। তবে সব ক্ষেত্রেই পরিমাণ হতে হবে নির্দিষ্ট। এছাড়া ডুবো তেল কিংবা পোড়া তেলে ভাজা খাবার এড়িয়ে চলতে বলেছেন চিকিত্সকগণ।

অতিরিক্ত তেল ও মসলায় যা হয় শর্করা ও আমিষজাতীয় খাবারের তুলনায় তেলজাতীয় খাবার থেকে আড়াই গুণ বেশি ক্যালরি আসে। মানে, ভাতের বদলে সমপরিমাণ পোলাও খেলে কিংবা রুটির বদলে সমপরিমাণ পরোটা খেলে আপনি আড়াই গুণ বেশি ক্যালরি পাবেন। ফলে ওজন বাড়ার ঝুঁকি থাকে।

অতিরিক্ত তেল ও মসলায় তৈরি খাবার খেলে অ্যাসিডিটি হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। ডুবোতেলে ভাজা খাবারে অ্যাসিডিটির আশঙ্কা আরও বেশি।

গুরুপাক বা অতিরিক্ত মসলা দেওয়া খাবার খেলে পেটের অন্যান্য সমস্যাও দেখা যায়। এমনকি আলসারও হতে পারে। অতিরিক্ত তেল-মসলা দিয়ে তৈরি খাবার সহজে হজমও হয় আচার্যা।

এছাড়াও একই তেলে বারবার ভাজা খাবার খেলে রক্তে চর্বির পরিমাণ বাড়তে পারে। সঙ্গে বেড়ে যায় হৃদ্‌রোগের ঝুঁকি।

Bootstrap Image Preview