Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৩ শনিবার, জুলাই ২০২৪ | ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

সুরের মূর্ছনায় মেতেছে ঢাকা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:০৯ PM
আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৩৬ PM

bdmorning Image Preview


উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় লোকসংগীতের আসর ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব’। গত বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে উৎসবের পঞ্চম আসরের উদ্বোধন হয়। বাংলাদেশ ছাড়াও উৎসবে গান পরিবেশন করছেন ৬টি দেশের ২০০ শিল্পী। খ্যাতিমান এই শিল্পীরা তিনদিন নিজ নিজ দেশের লোকগান পরিবেশন করবেন। সঙ্গে থাকছে লোকবাদ্যযন্ত্রের পরিবেশনা এবং লোকনৃত্য।

বাংলা সঙ্গীতের ছয় কিংবদন্তিকে উৎসর্গ করে শুরু হলো ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্ট ২০১৯’। এই ছয় কিংবদন্তি হলেন ফকির আব্দুর রব শাহ, সুবীর নন্দী, বারী সিদ্দিকী, শাহনাজ রহমতউল্লাহ, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, আইয়ুব বাচ্চু।

রাত ৯টায় শুরু হয় ফোক ফেস্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। শুরুতেই বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনের সদ্য প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পী সুবীর নন্দী, বারী সিদ্দিকী, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, আইয়ুব বাচ্চুর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়।

এরপর স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক সান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী। তিনি বলেন, লোকগান প্রাণের গান। এই উৎসবের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিচ্ছি লোক গানের সুর।

এরপর বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, প্রকৃতিগতভাবেই বাংলার লোকসংগীত যথেষ্ট সমৃদ্ধ ও ঐতিহ্যের দিক থেকেও অন্যদের তুলনায় বিশেষভাবে উন্নত। বর্তমান সময়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে লোকসংগীত পেয়েছে নতুন মাত্রা। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংস্কৃতি বান্ধব। তিনি বিশ্বাস করেন এমন আয়োজনের মাধ্যমে দেশের সাংস্কৃতি আরো বিকশিত হবে।

এ সময় তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ বলেন, আমাদের প্রধানতম মানুষ, প্রকৃতি, পৃথিবী, শেকড়ের রস- এসবই আমাদের লোকসংগীতের উপকরণ। লোকসংগীতের এই উৎসবে তারুণ্যের স্রোত আমাকে অভিভূত করেছে। লোকসংগীতের জয় হোক, তারুণ্য ও যৌবনের জয় হোক। এমন আয়োজন দেশে থেকে জঙ্গিবাদ বিলুপ্ত ঘটাবে। দেশে নেমে আসবে শান্তি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও চান এমন আয়োজনের মাধ্যমে দেশে শান্তির সুবাতাস বইবে। দেশের মানুষ যে শান্তিতে আছেন তার প্রমাণ এমন আয়োজন। এমন আয়োজন অব্যাহত থাকুক। এই লোকসংগীতের মধ্য দিয়ে সারাবিশ্ব বাংলাদেশকে নতুন করে চিনুক এটাই হোক প্রত্যাশা।

প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে শুরু হয়ে উৎসব চলবে রাত ১২টা পর্যন্ত। বাংলাদেশসহ ছয় দেশের দুই শতাধিক শিল্পী অংশ নিচ্ছে এবারের উৎসবে। ২০১৫ সাল থেকে প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্ট’। শনিবার শেষ হবে এবারের উৎসব।

Bootstrap Image Preview