Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ বুধবার, জুলাই ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

ভয়াবহ ভূমিকম্পে তুরস্ক সিরিয়ায় ৫ শতাধিক মৃত্যু

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:২২ PM
আপডেট: ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:২২ PM

bdmorning Image Preview


ভয়াবহ ভূমিকম্পে তুরস্ক ও সিরিয়ায় কমপক্ষে ৫২১ জনের মৃত্যু ও প্রায় তিন হাজার মানুষ আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশ দুটির কর্মকর্তারা।

তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওকতাইয়ের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, ভূমিকম্পে দেশটিতে মৃত বেড়ে ২৮৪ জন হয়েছে। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ২ হাজার ৩২০ জন।

সিরিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী আহমেদ দামিরিয়েহর বরাতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়, ভূমিকম্পে ২৩৭ জনের মতো মানুষের প্রাণহানি হয়েছে; আহত হয়েছে ৬৩৯ জন।

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোতে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অনুগত বাহিনী ও বিদ্রোহী উভয়ের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে।

তুরস্কের দুর্যোগ ও জরুরি অবস্থা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের (এএফএডি) বরাত দিয়ে টিআরটি ওয়ার্ল্ডের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সোমবার ভোররাত ৪টা ১৭ মিনিটে ৭.৪ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়, যার উৎপত্তিস্থল কাহরামানমারাস প্রদেশের পাজারসিক জেলায়। উৎপত্তিস্থলে এর গভীরতা ছিল ৭ কিলোমিটার।

পাজারসিকের পর তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় গাজিয়ানটেপ প্রদেশে ৬.৪ ও ৬.৫ মাত্রার দুটি ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

সহায়তার আশ্বাস যুক্তরাষ্ট্রের

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান এক বিবৃতিতে বলেন, তুরস্ক ও সিরিয়ায় ধ্বংসাত্মক ভূমিকম্পের খবরে যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

তিনি বলেন, ‘যেকোনো ধরনের সহায়তা দিতে আমরা প্রস্তুত।’

আমেরিকার নিরাপত্তা উপদেষ্টা বলেন, সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় করণীয় ঠিক করতে ইউএসএআইডিসহ কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

তিনি আরও বলেন, ‘তুরস্ক সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করে আমরা পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে যাব।’

এদিকে তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সয়লু বলেছেন, উদ্ধার তৎপরতায় বেশ কিছু দল যুক্ত হয়েছে। চতুর্থ পর্যায়ের সতর্কতা সংকেত জারি করা হয়েছে, যার মধ্যে আন্তর্জাতিক সহায়তার আহ্বানও রয়েছে।

বিভিন্ন দেশের শোক

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আনাদোলুর খবরে বলা হয়, দেশটিতে ভয়াবহ ভূমিকম্পের ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ইউক্রেন, ফ্রান্স, আজারবাইজান, ইসরায়েল, ভারত ও পাকিস্তান।

Bootstrap Image Preview