Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ মঙ্গলবার, জুলাই ২০২৪ | ১ শ্রাবণ ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

জেলবন্দি নেতার মালিশের ভিডিও ভাইরাল

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৬ PM
আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৬ PM

bdmorning Image Preview


ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটকে (ইডি) আদালত অবমাননার নোটিশ পাঠিয়েছেন দিল্লির বিশেষ আদালত। দেশটির তিহার জেলে বন্দি দিল্লির এক মন্ত্রী মালিশ নিচ্ছেন- এমন ভিডিও আজ শনিবার সকাল থেকেই ভাইরাল। এ ঘটনার জেরে অরবিন্দ কেজরীওয়ালের আম আদমি পার্টির (আপ) তীব্র সমালোচনা করেছে বিজেপি। এই প্রেক্ষিতেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে অবমাননার নোটিশ জারি করলেন আদালত।

দিল্লিতে অরবিন্দ কেজরীওয়াল মন্ত্রিসভার সদস্য সত্যেন্দ্র জৈন তিহার জেলের সেলে বন্দি অবস্থায় মালিশ নিচ্ছেন। শনিবার সকাল থেকেই বিজেপির প্রচারিত এই ভিডিও নিয়ে তুলকালাম। আপের মন্ত্রী জেলে বসে ভিভিআইপি পরিষেবা পাচ্ছেন, এই দাবিতে সরব হয়েছে বিজেপি। অন্যদিকে আদালতের নিষেধ সত্ত্বেও কিভাবে সেলের ভেতরের সিসিটিভি ফুটেজ বিজেপির হাতে গেল, তা নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার হুমকি দিয়েছে আপ।

এদিকে বিজেপির অভিযোগ উড়িয়ে আপের নেতা তথা দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া বলেছেন, সত্যেন্দ্র পড়ে গিয়ে আহত হয়েছেন। চিকিৎসকরা তাকে ফিজিওথেরাপি করাতে বলেছেন। তাই তাকে সেলের মধ্যে ফিজিওথেরাপি দেওয়া হচ্ছিল।

মণীশ ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, আদালতের নিষেধ সত্ত্বেও কিভাবে সেলের ভেতরের সিসিটিভি ফুটেজ বিজেপির হাতে গেল, তা নিয়ে আদালতেরই দ্বারস্থ হওয়া হবে। এই প্রেক্ষিতেই সত্যেন্দ্রর আবেদনের ভিত্তিতে দিল্লির বিশেষ আদালত অবমাননার নোটিশ জারি করলেন ইডির বিরুদ্ধে। কেন এবং কে এই ভিডিও ফাঁস করলেন তা জানতে চান আদালত। ২১ নভেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

আইনজীবী মো. এরশাদ জানিয়েছেন, সত্যেন্দ্র জৈনের আবেদনের ভিত্তিতে বিশেষ আদালত ইডির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার নোটিশ জারি করেছেন। সোমবার আদালত জানবে কিভাবে বিজেপি ওই গোপন ভিডিও ফুটেজ পেল এবং কেন তা ছড়িয়ে দেওয়া হলো। তার দাবি, ইডি আদালতে মুচলেকা দিয়েছিল, জেলের ভেতরের ফুটেজ কোনোভাবেই প্রকাশ্যে আনা হবে না।

প্রসঙ্গত, আর্থিক তছরুপের অভিযোগে গত জুন থেকে জেলে রয়েছেন সত্যেন্দ্র। কিন্তু আপ তাকে মন্ত্রিসভা থেকে সরায়নি। শনিবার এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর মণীষের কাছেও সেই প্রশ্ন করা হয়। তার জবাব ছিল, ভোটে ভরাডুবির থেকে নজর ঘোরাতে বিজেপি এই সব গল্প ফাঁদছে। বিজেপির রঙিন গল্পে ভুলে সত্যেন্দ্রকে সরানোর প্রশ্নই নেই।

 

Bootstrap Image Preview