Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৫ শনিবার, জুন ২০২৪ | ১ আষাঢ় ১৪৩১ | ঢাকা, ২৫ °সে

শুটিং শেষ করেও 'হাউসফুল' থেকে সরে গেলেন নানা পাটেকর

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৩৪ PM
আপডেট: ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৩৪ PM

bdmorning Image Preview
ফাইল ছবি


হাউসফুল-ফোর সিনেমায় একজন গজল শিল্পীর চরিত্রে দেখা যেত তাকে। সিনেমাটির শুটিংয়ে অংশও নিয়েছেন এ অভিনেতা। এমনকি তার অংশের শুটিং শেষও করেছেন তিনি। তবে এরই মধ্যে যৌন হেনস্তার অভিযোগ ছুটে আসে তার দিকে। ফলে অনেকটা অনিচ্ছাকৃত ভাবেই হাউসফুল-ফোর সিনেমা থেকে সরে গেলেন এ অভিনেতা। বলা হচ্ছে বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা নানা পাটেকরের কথা।

ঘটনাটি অবিশ্বাস্য হলেও এমন খবর জানানো হয়েছে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগটি যখন তোলা হয় তখন এ সিনেমাটির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন নানা পাটেকর। তবে পরিচালক সাজিদ খানের পর হাউসফুল-ফোর সিনেমা থেকে অভিনেতা নানা পাটেকর সরে যাওয়ার এমন সংবাদই প্রকাশ করা হয় সংবাদমাধ্যমটিতে।

বলিউডে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলন এখন বেশ জোরালো। এ আন্দোলন শুরুর পর থেকে বলিপাড়ার বহু তারকাদের ক্যারিয়ারে দাগ লাগা শুরু হয়। অনেকেই নিজেদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা তুলে ধরা শুরু করেন।

মূলত, নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তোলেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। ২০০৮ সালে হর্ন ওকে প্লিজ সিনেমার সেটে তাকে এ অভিনেতা হেনস্তা করেন বলে অভিযোগ তোলেন আশিক বানায়া আপনে অভিনেত্রী। এরপর থেকেই বেশ জোরালো আকার ধারণ করা শুরু করে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলন।

নানা পাটেকরের ছেলে মল্লার পাটেকরের এক বিবৃতির বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অক্ষয় কুমার হাউসফুল-ফোর সিনেমার শুটিং বন্ধের ঘোষণা দেয়ার পর সিনেমাটি থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নানা পাটেকর। এ অভিনেতা মনে করছেন এ মুহূর্তে তার সিনেমাটি থেকে সরে যাওয়া উচিৎ। পাশাপাশি সিনেমা ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের জন্য শুভ কামনাও জানিয়েছেন এ অভিনেতা।

গতকাল শুক্রবার অক্ষয় কুমার হাউসফুল-ফোর সিনেমার শুটিং বন্ধের সিদ্ধান্ত নেন। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে তিনি লেখেন, ‘আমি গত রাতে দেশে পৌঁছেছি, এরপর সব খবর পড়লাম। এটি খুবই হতাশাজনক। পরবর্তী তদন্ত না হওয়া পর্যন্ত হাউসফুল-ফোর সিনেমার প্রযোজককে শুটিং বাতিলের অনুরোধ করেছি। আমি কোনো দোষী ব্যক্তির সঙ্গে কাজ করব না। যারা হেনস্তার শিকার হয়েছেন তাদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনে প্রাপ্য ন্যায়বিচার দেয়া উচিৎ।’

এদিকে, অক্ষয়ের এ সিদ্ধান্তের পর পরিচালকের আসন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন সাজিদ খান। এক টুইটে তিনি লেখেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে এবং আমার পরিবার, হাউসফুল-ফোর সিনেমার প্রযোজক ও শিল্পীদের ওপর যে চাপ দেয়া হচ্ছে এর পরিপ্রেক্ষিতে যতক্ষণ পর্যন্ত না আমি নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পারছি, নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকে পরিচালকের আসন ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছি। আমি আমার মিডিয়ার বন্ধুদের কাছে অনুরোধ করছি যতক্ষণ পর্যন্ত সত্য প্রকাশ না পাচ্ছে এ বিষয়ে কোনো বিচার করবেন না।’

Bootstrap Image Preview