Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ৩১ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২০২৩ | ১৮ মাঘ ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

দুর্গাপূজায় নিরাপত্তা দেওয়ায় নামাজে বাধা, সমাজচ্যুত লিখিত অভিযোগ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৩৭ PM
আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৩৭ PM

bdmorning Image Preview


লালমনিরহাটে দুর্গাপূজায় আনসার সদস্য হিসেবে পূজা মণ্ডপে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করায় ওই পরিবারকে জুম্মার নামাজে বাধা ও সমাজচ্যুত করার লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।শুক্রবার (৭ অক্টোবর) লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদের দক্ষিণ শিবের কুটি গ্রামে নামাজে বাধা ও সমাজচ্যুত করার এ ঘটনা ঘটে। পরে ভুক্তভোগী থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগী ওই গ্রামে নুরু মিয়া বলেন, তার মেয়ে আনসার সদস্য নুর বানু সরকারের নির্দেশে দুর্গাপূজা মণ্ডপে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেছে। শুক্রবার দুপুরে জুম্মার নামাজ আদায় করতে গেলে দক্ষিণ শিবের কুটি জামে মসজিদের সভাপতি, কোষাধ্যক্ষসহ অনেকে আমাকে নামাজ পড়তে দেয়নি এবং সমাজচ্যুত করার হুমকি দিয়েছে। 

তিনি বলেন, ওই মসজিদ কমিটির অভিযোগ- মেয়ে হিন্দুদের দুর্গাপূজায় নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল। তাই আমাদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা। নূর মিয়া বলেন, দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাগুলোর প্রতিটি ইউনিট দুর্গাপূজায় নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল। আমি এখনকার মসজিদ কমিটির এমন সাম্প্রদায়িক আচরণের বিচার চাই।

আনসার সদস্য নুর বানু জানান, বিচারের আশায় থানায় অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো অভিযুক্তকে পুলিশ আটক করেনি।  তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এলেও এখনও অভিযোগটি নথিভুক্ত হয়নি। এমন অবস্থায় বিচার হওয়ার নিয়ে হতাশা ও পরিবারসহ আতঙ্কে আছি। যারা বাবাকে নামাজ পড়তে দেয়নি এবং সমাজচ্যুতির হুমকি দিয়েছেন তারা প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করছেন।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ এরশাদুল জানান, এ ঘটনা জানার পর থানার এসআই বজলুলসহ পাঁচজন পুলিশ সদস্যের একটি দলকে ঘটনা স্থলে তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে এর বেশি কিছু আর জানান নাই এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, এটি মিমাংসা হয়েছে।তবে কী মিমাংসা হয়েছে, রাষ্ট্রের নিরাপত্তার পালন করতে গিয়ে এমন পরিস্থিতির শিকার হয়েও কেন আপোষ সে বিষয়ে কোনো কথা বলেননি এই পুলিশ কর্মকর্তা। এদিকে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর জানান, থানায় অভিযোগ হয়েছে। তদন্ত করে অবশ্যই আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

Bootstrap Image Preview