Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৮ বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বার ২০২২ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

কালো বলায় ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে স্বামীকে হত্যা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:১৮ PM
আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:১৮ PM

bdmorning Image Preview
ছবি সংগ্রহীত


স্ত্রীকে কালো বলে কুৎসিত বলে কটূক্তি করতেন স্বামী। বারবার এমন কটূক্তির কারণে বিরক্ত হয়ে পড়েন স্ত্রী। সেই বিরক্তির একপর্যায়ে রূপ নেয় ক্ষোভে। আর এমন ক্ষোভ থেকে স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে স্ত্রী। কেটে ফেলা হয়েছে তার ‘বিশেষ অঙ্গ’।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে ভারতের ছত্তিশগড়ের দুর্গ জেলার অমলেশ্বর গ্রামে স্বামী অনন্ত সোনওয়ানিকে (৪০) হত্যার অভিযোগে স্ত্রী সঙ্গীতা সোনওয়ানিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্থানীয় পুলিশের বরাতে মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহকুমা পুলিশ অফিসার দেবাংশ রাঠোর।   

পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, অনন্ত সোনওয়ানি তার স্ত্রীকে কুৎসিত বলে ডাকতেন এবং কালো ত্বকের জন্য ঘনঘন কটূক্তি করতেন। এ নিয়ে এর আগেও বেশ কয়েকবার ওই দম্পতির মধ্যে ঝগড়া হয়। রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতেও ওই দম্পতির মধ্যে ঝগড়া হয়। ক্ষোভের জেরে সঙ্গীতা ঘরে রাখা কুড়াল দিয়ে তার স্বামীকে আক্রমণ করে এবং ঘটনাস্থলেই তাকে হত্যা করে। এ সময় ওই নারী ভুক্তভোগীর বিশেষ অঙ্গও কেটে ফেলেন বলে অভিযোগ উঠেছে।   

পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত সঙ্গীতা ঘটনার পরের দিন সকালে তার স্বামীকে কেউ হত্যা করেছে দাবি করে গ্রামবাসীকে বিভ্রান্ত করারও চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু পরে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজের অপরাধ স্বীকার করে। সঙ্গীতা অনন্ত সোনওয়ানির দ্বিতীয় স্ত্রী ছিলেন। সঙ্গীতা সোনওয়ানির বিরুদ্ধে ধারা ৩০২ (হত্যা) এবং আইপিসির অন্যান্য প্রাসঙ্গিক আইনের অধীনে মামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আরও তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

Bootstrap Image Preview