Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৮ সোমবার, আগষ্ট ২০২২ | ২৩ শ্রাবণ ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

তরুণ-তরুণী পলাতক: ছেলের মাকে পুড়িয়ে মারলেন মেয়ের মা!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২২, ০৮:১৯ AM
আপডেট: ২৯ জুন ২০২২, ০৮:১৯ AM

bdmorning Image Preview


ময়মনসিংহে প্রেম নিয়ে বিরোধের জের ধরে মেয়ের মায়ের দেওয়া আগনে মারা গেছেন ছেলের মা লাইলি বেগম (৩৫)। তিনি শহরের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের চর ঈশ্বরদিয়া এলাকার আব্দুর রশিদের স্ত্রী।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) দুপুরে নগরীর ৩১ নং ওয়ার্ডের চর ঈশ্বরদিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর ৩১ নং ওয়ার্ডের চর ঈশ্বরদিয়া এলাকায় লাইলি বেগমের গায়ে আগুন দেন মেয়ের মা নাসরিন আক্তার (৩৮) ও তার সহযোগী আছিয়া আক্তার কনা (৩৬)।   পরে তাকে মারাত্মক দগ্ধ অবস্থায়ি উদ্ধার করে ঢাকা শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় মারা যান তিনি।  

নিহতের স্বামী আব্দুর রশিদ দাবি করেন, প্রতিবেশী খোকন ওরফে কাজল মিয়ার মেয়ে খুকি আক্তারের (১৭) সঙ্গে তার ছেলে সিরাজুল ইসলামের প্রেমে ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন আগে খুকি আক্তারের বিয়ের কথা শুরু হয়। তা জানতে পেরে গত ২৬ জুন সিরাজুল ও খুকি পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে সামাধানের লক্ষ্যে মঙ্গলবার (২৮ জুন) সালিশের সিদ্ধান্ত নেন স্থানীয়রা। কিন্তু তার আগেই মেয়ের মা কনা আক্তার, চাচি নাসরিন, আসমা ও রুমা আক্তার মিলে আমাদের বাড়িতে এসে আমি না থাকার সুযোগে আমার স্ত্রীর হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে তার শরীরে পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এ সময় তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে আমার স্ত্রীকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে রোগীর অবস্থা খারাপ হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকায় রেফার্ড করেন।

ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, এ ঘটনায় নিহতের স্বামী বাদিী হয়ে ৮ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন।

এরই মধ্যে মামলায় জাহাঙ্গীর ও হাফিজা খাতুন নামে দুই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জড়িত অন‍্যদেরও দ্রুত গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

Bootstrap Image Preview