Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৯ মঙ্গলবার, নভেম্বার ২০২২ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

পল্টুন থাকলেও বেইলী ব্রিজ নেই, কলাপাড়া লঞ্চঘাট যেন ময়লার স্তূপ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৫:২২ PM
আপডেট: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৮:৩১ PM

bdmorning Image Preview


জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর কলাপাড়া লঞ্চঘাটে পল্টুন আছে, প্রতিদিন লঞ্চও ঘাটে আসে। যাত্রীরাও এ ঘাট থেকে লঞ্চে আসা-যাওয়া করে। কিন্তু পল্টুন থেকে পারাপারের একমাত্র বেইলি ব্রিজটি দীর্ঘদিন ধরে পড়ে আছে ভগ্ন দশায়। ফলে প্রতিদিন যাত্রী পারাপারসহ শ্রমিকদের পণ্য পরিবহন চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কলাপাড়া লঞ্চঘাটের পল্টুনে চলাচলের একমাত্র বেইলি অনেক জায়গায় নেই কাঠের স্লিপার। যা রয়েছে তাও অধিকাংশ ভাঙা। পল্টুনের কাছে কোন স্লিাপরের চিহ্ন নেই। পাশেই পড়ে থাকা পুরনো পল্টুনে একটি কাঠের তক্তা দিয়ে যাত্রীরা পারপারসহ শ্রমিকরা ঝুঁকি নিয়ে পণ্য পরিবহন করছে। পল্টুনের আশেপাশে জমে আছে ময়লার স্তূপ।

স্থানীয় ব্যবসায়ী পরান বাবু জানান, আশপাশের সকল ময়লা অর্বজনা লঞ্চঘাটের পাশে ফেলা হচ্ছে। জোয়ারের সময় এসব আর্বজনা পানিতে ভাসছে। ভাটায় সময় আটকে থাকছে। এসবের দুর্গন্ধে আশপাশের পরিবেশ হয়ে উঠেছে বিষক্ত।

লঞ্চঘাট কেন্দ্রীক পণ্য পরিবহনকারী শ্রমিক সোবাহান, নাসির ও রুবেল জানায়, দীর্ঘদিন পল্টুনটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে থাকার পর নতুন পল্টুন স্থাপিত হয়েছে। কিন্তু বেইলি ব্রিজটির সংস্কার করা হয়নি। এতে করে প্রতিদিন কম-বেশী যাত্রী আহত হচ্ছে। অনেক শ্রমিক আহত হয়েছে। জাকির নামের এক শ্রমিক আহত হয়ে মরণের হাত থেকে ফিরে এসেছে। বর্তমানে সে কর্মক্ষতা হারিয়ে মানবেতর জীবন পার করছে।

কলাপাড়া এক্সপ্রেস কার্গো সার্ভিসের সত্বাধিকারী সাইদুর রহমান জানান, তাদের কার্গো সার্ভিসের মাধ্যমে দখিনের বাণিজ্যিক কেন্দ্র কলাপাড়া সর্বাধিক মালামাল পরিবহন হয়ে থাকে। কার্গো যখন ঘাটে আসে তখন দিনরাত কাজ করতে হয় শ্রমিকদের। দিনে সতর্ক হয়ে কাজ করলেও রাতে চরম ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয় শ্রমিকরা। ভারী ভারী মালামাল শ্রমিকরা মাথায় করে বহন করে। ফলে সব সময় আতঙ্কে থাকতে হয়। কখন না জানি দুর্ঘটনা ঘটে।

ঘাটের ইজরাদার শামীম জানান, লঞ্চ ও কার্গো ছাড়াও বিভিন্ন ধরণের নৌ-যান লঞ্চঘাটে নোঙর করে। সবাই ঝুঁকি নিয়ে পারপার হচ্ছে। বেইলি ব্রিজটি সংস্কারের জন্য কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

পটুয়াখালী অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের সহকারী পরিচালক খাজা সাদিকুর রহমান জানান, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করছি খুব দ্রুত বেইল ব্রিজের সংস্কার কাজ সম্পন্ন হবে।

Bootstrap Image Preview