Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০২ শুক্রবার, ডিসেম্বার ২০২২ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিশ্ব পর্যটন দিবস আজ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:১৩ PM
আপডেট: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:১৩ PM

bdmorning Image Preview


পৃথিবী জুড়ে পর্যটন শিল্প এখন বৃহত্তম শিল্প হিসেবে স্বীকৃত। পর্যটনই টেকসই উন্নয়নের হাতিয়ার। প্রতি বছর ২৭ সেপ্টেম্বর পালন করা হয়বিশ্ব পর্যটন দিবস। আজও সারাবিশ্বের মতো বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যপর্যটন শিল্প বিকাশে তথ্যপ্রযুক্তিপ্রতিপাদ্য নিয়ে বাংলাদেশে উদযাপন করা হবেবিশ্ব পর্যটন দিবস-২০১৮

এ প্রসঙ্গে বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল বলেছেন, ‘বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই প্রতিপাদ্য খুবই প্রাসঙ্গিক। প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে পর্যটকরা সহজেই গন্তব্য নির্বাচন করতে পারছেন। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের সুবাদে ঘরে বসে বিমান ও রেলের টিকিট বুকিং, হোটেল বুকিং, মিউজিয়ামের টিকিট কেনাসহ ভ্রমণ সংক্রান্ত বিভিন্ন সেবা পর্যটকরা এখন দ্রুত ও সহজেই পাচ্ছেন।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বাংলাদেশে স্বাভাবিকভাবে পর্যটন শিল্প উন্নয়নের সম্ভাবনা অপরিসীম। এখানকার ইতিহাস-ঐতিহ্য ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সবসময়ই মুগ্ধ করে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের। প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন, ঐতিহাসিক মসজিদ ও মিনার, পৃথিবীর দীর্ঘতম প্রাকৃতিক সমুদ্র সৈকত, পাহাড়, অরণ্য; সব মিলিয়ে বাংলাদেশে পর্যটক-আকর্ষক স্থানের অভাব নেই। প্রকৃতির রূপ লুকিয়ে আছে সারাবাংলাতেই।

দিবসটি উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পর্যটনের ভূমিকা সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক উপযোগিতাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থার (ইউএনডব্লিউটিও) উদ্যোগে ১৯৮০ সাল থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর দিবসটি পালন করা হয়।

এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে- পর্যটন শিল্প বিকাশে তথ্যপ্রযুক্তি।এবারের প্রতিপাদ্যে পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে তথ্যপ্রযুক্তির ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। প্রতি বছরের মতো এবারও বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন ও বাংলাদেশ টুরিজম বোর্ডসহ বিভিন্ন পর্যটন সংস্থা দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

বাণীতে রাষ্ট্রপতি ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে তথ্য-প্রযুক্তিনির্ভর মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পর্যটন শিল্পের অবদান নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, পর্যটন ব্যবসা পরিচালনায় ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদেরও স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসতে হবে।

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে আগামীকাল ঢাকায় শুরু হচ্ছে ৭ম এশিয়ান টুরিজম ফেয়ার-২০১৮। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন ও বাংলাদেশ টুরিজম বোর্ডের সার্বিক সহযোগিতায় পর্যটন বিচিত্রা এ টুরিজম ফেয়ারের আয়োজন করছে।

রাজধানীর বসুন্ধরার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে আগামী ২৮, ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় মেলা উদ্বোধন করবেন।

মেলার প্রথম দিন ২৮ সেপ্টেম্বর বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠেয় এক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার উপস্থিত থাকবেন বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন। মেলায় বাংলাদেশসহ ভারত, নেপাল, চীন, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন পর্যটন সংস্থার ১২০টি স্টল অংশ নেবে।

Bootstrap Image Preview