Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৯ বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বার ২০২২ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

অনুষ্ঠানে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত আগেই নিয়ে রেখেছিলেন তাঁরা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৪:২০ AM
আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৪:৩৩ AM

bdmorning Image Preview


লন্ডনে সোমবার রাতে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ফিফার বর্ষসেরার পুরস্কার দেওয়া হয়। অনুষ্ঠান শুরুর বেশ কয়েকঘণ্টা আগে থেকেই বেশি উজ্জ্বল হতে শুরু করেছিল লুকা মদ্রিচের নাম। ফিফার বর্ষসেরা যে এই ক্রোট তারকাই হতে চলেছেন, সব কিছুই যেন ইঙ্গিত করছিল সে দিকে।

লিওনেল মেসির নাম প্রথম তিন মনোনীত ফুটবলারের মধ্যে ছিল না। তাই, তিনি আগেই জানিয়ে দেন, লন্ডনে পুরস্কার দেওয়ার অনুষ্ঠানে তিনি যাবেন না। সোমবার সকালে আরও বেশি করে মদ্রিচের নাম ভেসে ওঠে ক্রিষ্টিয়ানো রোনালদো লন্ডন না যাওয়ার কথা বলায়। মদ্রিচের সঙ্গে রোনালদো আর মোহামেদ সালাহর মনোনয়ন হয়েছিল প্রথম তিন ফুটবলার হিসেবে। সিআর সেভেন যাবেন না শুনে, সবাই ধরেই নেয়, উয়েফার পথেই হাঁটতে চলেছে ফিফা।

কিছু দিন আগে উয়েফার বিচারে বর্ষসেরা হয়েছিলেন মদ্রিচ। ফিফার ভোটিং যদিও আরও বড়। আর এ ক্ষেত্রে রোনালদোর পক্ষে ভোট দেওয়ার লোকেরও অভাব নেই। সারা বিশ্বের সব দেশের ক্যাপ্টেন, কোচ, একজন করে সাংবাদিকের ভোটের পর পুরস্কার। হিসেব পাল্টানোর সম্ভাবনা কিছু কম নয়। তবু বিশ্বকাপের সোনার বলজয়ীর দাবি অনেক বেশি।

এ বছর রোনালদো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে। কিন্তু বিশ্বকাপে ছিটকে গিয়েছেন শেষ ষোলো থেকেই। মোহাম্মদ সালাহর প্রিমিয়ার লিগে টপ স্কোরার হয়েছিলেন। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে উঠেছিলেন লিভারপুলের হয়ে। কিন্তু বিশ্বকাপে ব্যর্থ। মদ্রিচ রোনালদোর মতোই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী। তারপর বিশ্বকাপেও ছিলেন দুর্দান্ত ফর্মে। ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে তোলেন। টুর্নামেন্টের সেরা ফুটবলারও হন। তাই মদ্রিচের দিকেই পাল্লা ভারী ছিল।

ফুটবলারদের মধ্যে সব ঘটনা মদ্রিচের দিকে ইঙ্গিত করলেও কোচেদের লড়াই আবার ছিল বেশ জমাটি। দুই ফরাসির লড়াই বেশি উত্তেজক। চ্যাম্পিয়ন্স লিগজয়ী জিনেদিন জিদান বনাম বিশ্বকাপজয়ী দিদিয়ের দেশঁম। তাঁদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার কোচ জ্লাটকো দালিচের। যদিও সেরা কোচ হওয়ার পুরষ্কারটা শেষ অবদি বিশ্বকাপ জয়ী কোচের হাতেই উঠেছে। এদিকে মেয়ে ফুটবলারদের মধ্যে সেরা হওয়ার লড়াই নরওয়ের আডা হেগেরবার্গ, জার্মানির জেনিফার মারোজসান এবং ব্রাজিলের মার্তার মধ্যে।

Bootstrap Image Preview