Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৯ বুধবার, জুন ২০২২ | ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘১৫ বছর বয়সে প্রথম ধর্ষণ, জানিয়েছিলাম আমার ডায়েরিকে’

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৪:০৬ PM
আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৪:০৬ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


গতবছর থেকে অভিনয় ইন্ডাস্ট্রির তারকারা সরব হন যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে। এই তালিকায় উঠে এল জনপ্রিয় হলিউড অভিনেত্রী অ্যাশলে জুডের নাম। মাত্র ১৫ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।

হ্যাশট্যাগ মিটু ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে হলিউড বলিউডের তারকারা নিজেদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া যৌন হেনস্থার গল্প শোনান বিশ্ববাসীকে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে ৫০ বছর বয়সী অ্যাশলে লিখেছেন, ‘প্রথমবার যখন আমাকে যৌন হেনস্থা করা হয়, তখন আমার মাত্র সাত বছর বয়স। আমি আমার অভিভাবককে কথাটা জানালে তিনি বলেছিলেন, আমি একজন ভালো মানুষকে ভুল ভাবছি।’

অ্যাশলে আরও লিখেছেন, ‘কিন্তু এরপর ১৫ বছর বয়সে যখন আমি ধর্ষণের শিকার হই, সে সময় কাউকে কিছু না জানিয়ে ডায়েরিতে লিখেছিলাম। এরপর ডায়েরিটা পড়ে আমার পরিবারের একজন জানান, আমি আমার চেয়ে বয়স্ক মানুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়েছি বলে আমার লজ্জা হওয়া উচিত।’

শুধু অ্যাশলে নন, এমন অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন হলিউডের অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, লেডি গাগা, জেনিফার লোপেজসহ অনেকে। এ ছাড়া বলিউডের অনেক পুরুষ ও নারী তারকাও প্রতিনিয়ত শিকার হচ্ছেন যৌন হয়রানির।

তবে অনেকেই নিজেদের হেনস্থার কথা শিকার করে জানিয়েছেন কেন তারা অভিযোগ দায়ের করেননি। যৌন হেনস্থার পরও মানসিকভাবে অত্যাচারিত হতে হয়, যে জন্য তারা হয়রানির কথা প্রকাশ্যে আনতে চাননা বলে জানিয়েছেন।

এদিকে হ্যাশট্যাগ মিটু ক্যাম্পেইনের পর টুইটারে শুরু হয়েছে হ্যাশট্যাগ হোয়াই আই ডিডনট রিপোর্ট নামের নতুন ক্যাম্পেইন। এটি চালু করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমেরিকান অ্যাটোর্নি ব্রেট মাইকেল ক্যাভানফের বিরুদ্ধে প্রফেসর ক্রিস্টিন ফোর্ড কেন যৌন হেনস্থার মামলা করেননি, এমনই প্রশ্ন তুলে এই ক্যাম্পেইন খুলেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ক্রিস্টিন জানান, তাকে যৌন হেনস্থা করেছেন ব্রেট। তাই এমন প্রশ্ন করেছেন ট্রাম্প। যদি যৌন হেনস্থা হয়েই থাকে তাহলে ব্রেটের বিরুদ্ধে আইনও সঠিক ব্যবস্থা নিত বলে জানিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি।

Bootstrap Image Preview