Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০১ বুধবার, ডিসেম্বার ২০২১ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

বাংলাদেশে উৎপাদন হবে ৫০০ সিসির রয়েল এনফিল্ড মোটরসাইকেল

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২২ অক্টোবর ২০২১, ১১:০১ AM
আপডেট: ২২ অক্টোবর ২০২১, ১১:০২ AM

bdmorning Image Preview
ছবি সংগৃহীত


সরকার অবশেষে বিদ্যমান ১৬৫সিসি ইঞ্জিনের সীমা থেকে ৫০০সিসির মাঝারি সাইজের মোটরসাইকেল স্থানীয়ভাবে উৎপাদনের অনুমতি দিতে শুরু করেছে।

গত রোববার (১৭ অক্টোবর) শিল্প মন্ত্রণালয় ইফাদ মোটরস লিমিটেডকে স্থানীয়ভাবে উচ্চ ইঞ্জিন ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেল উৎপাদনের সম্মতি দিয়েছে বলে মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানা গেছে।

ইফাদ মোটরস এখন চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে তার মোটরসাইকেল কারখানা স্থাপন করছে। কোম্পানির পরিচালক তাসকিন আহমেদ বলেছেন, সেখানে ৩৫০সিসি এবং বড় ইঞ্জিনের আইকনিক রয়েল এনফিল্ড বাইক তৈরি করা হবে।

স্থানীয় কারখানাগুলি যাতে ৫০০সিসি পর্যন্ত মোটরসাইকেল তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল এবং যন্ত্রাংশ আমদানি করতে পারে, সেজন্য সোমবার (১৮ অক্টোবর) শিল্প মন্ত্রণালয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি লিখে আমদানি নীতিমালা আদেশ ২০২১-২৪ এর খসড়া সংশোধন করেছে।

বিদ্যমান নীতিমালা স্থানীয় বাজারের জন্য ১৬৫সিসির বেশি ইঞ্জিন বা মোটরসাইকেল আমদানির অনুমতি দেয় না। তবে, স্থানীয় উৎপাদনকারীরা শুধুমাত্র রপ্তানির জন্য ৫০০সিসি পর্যন্ত উচ্চ ইঞ্জিন ক্ষমতা সম্পন্ন মোটরসাইকেল উৎপাদন করতে পারে। তবে ইফাদ মোটরসের উৎপাদন অনুমোদন এবং আমদানি নীতিমালার আদেশ এ প্রস্তাবিত সংশোধনের ফলে এ বাধা বর্তমানে দূর হচ্ছে। এখন থেকে উৎপাদনকারীরা স্থানীয় বাজারে উচ্চতর ইঞ্জিন ক্ষমতার মোটরসাইকেল বিক্রি করতে পারবে এবং সেই সঙ্গে রপ্তানি করতে পারবে।

২৮ সেপ্টেম্বর শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব জাকিয়া সুলতানার নেতৃত্বে সরকারি দপ্তর এবং মোটরসাইকেল শিল্পের প্রতিনিধিদের মধ্যে অনুষ্ঠিত একটি বৈঠকের পর শিল্প মন্ত্রণালয়ের এই পদক্ষেপ গ্রহণ করে। তবে বৈঠকে ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরের মাসের পূর্বে বাংলাদেশের রাস্তায় উচ্চতর ইঞ্জিন ধারণক্ষমতার বাইকের অনুমতি দেওয়ার ধারণার বিরোধিতা করেছে বাংলাদেশ মোটরসাইকেল অ্যাসেম্বলার্স অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন। ইঞ্জিনের ক্ষমতার সীমাবদ্ধতা শিথিল করা হলে তারা ব্যবসায়িক ক্ষতির আশঙ্কা করছিল।

অপরদিকে মোটরসাইকেল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ মোটরসাইকেল শিল্পে বিনিয়োগ আকর্ষণের স্বার্থে ইঞ্জিনের ধারণ ক্ষমতা সীমাবদ্ধতা প্রত্যাহারের সুপারিশ করেছে।

সভায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের একজন প্রতিনিধি মোটরসাইকেলের সিসি সীমা বাড়ানোর পক্ষে মত দেন। এবং ইফাদের মতো প্রতিষ্টান ছাড়া উন্নত বাইকের জন্য কারখানা স্থাপন করতে পারবে না বলে মত দেন।

Bootstrap Image Preview