Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ মঙ্গলবার, অক্টোবার ২০২১ | ৪ কার্তিক ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

কুমিল্লার ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ানো সেই ফয়েজ আটক

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২০ PM
আপডেট: ১৪ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২০ PM

bdmorning Image Preview
ছবি সংগৃহীত


কুমিল্লা নগরীর একটি পূজামণ্ডপে পবিত্র কুরআন শরিফ পাওয়ার অভিযোগ করে ফেসবুক লাইভে করা ফয়েজ উদ্দীনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। এ ছাড়া শহরজুড়ে বিভিন্ন মণ্ডপে ভাঙচুরের ঘটনায় আরও ৪২ জন আটক হয়েছেন।

চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন আজ বৃহস্পতিবার সকালে নানুয়ার দীঘির পাড়ের আলোচিত মণ্ডপ এলাকা পরিদর্শন করে জানান, মণ্ডপে কোরআন শরিফ পাওয়া গেছে, এমন তথ্য দিয়ে বুধবার সকালে ফেসবুকে লাইভ করেন ফয়েজ উদ্দীন। এরপর দ্রুত সেটি ভাইরাল হয়, ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, পুরো ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। এসব ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ডিআইজি বলেন, ওই ভিডিও দেখলে বোঝা যায়, একটি স্পষ্ট উদ্দেশ্য নিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিশেষভাবে ঘটনাস্থল থেকে যে লোক (ফয়েজ উদ্দীন) ভিডিও করে ছড়িয়ে দিয়েছে, তাকে আটক করা হয়েছে। সে কোনও দলের কর্মী কি না সেটি যাচাই করা হচ্ছে।

এদিকে নগরীজুড়ে বৃহস্পতিবারও টহল দিচ্ছে বিজিবির দুই প্লাটুন সদস্য। গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঘটনা তদন্তে তিন সদস্য কমিটি গঠন করে জেলা প্রশাসন। কমিটিকে সোমবার প্রতিবেদন জমার নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) কামরুল হাসান।

কুমিল্লার ঘটনায় কয়েকজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

 

কুমিল্লার পূজামণ্ডপে ঘটে যাওয়া ঘটনায় কয়েকজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। শিগগিরই তাদের গ্রেপ্তার করা হবে। ইতিমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক শেষে এসব কথা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামন খান।

বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধান, গোয়েন্দা সংস্থার প্রধানসহ সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, কুমিল্লার ঘটনার জেরে সারা দেশের আরও বিভিন্ন জায়গায় এমন ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে চাঁদপুরের হাজিগঞ্জে চারজন নিহত হয়েছেন। তবে এসব ঘটনায় সঙ্গে সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের নিয়োজিত করা হয়েছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, কুমিল্লার ওই ঘটনায় তদন্ত হচ্ছে। তদন্তের পর বিস্তারিত জানানো হবে। তবে তাঁরা মনে করছেন, স্বার্থান্বেষী মহলের উদ্দেশ্যমূলক কাজ এটি।

জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, যারা জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কেউ উসকানি দিলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও গুজব ছড়ানো হচ্ছে। যারা এসব অপচেষ্টা করছে ও করবে, তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

Bootstrap Image Preview